করণের শো তে ঠিক কি বলেছিলেন হার্দিক-রাহুল? পড়ুন।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ হার্দিক পান্ডিয়া ও কে এল রাহুলকে নিয়ে এখন ভারত তোলপাড়। কঠিন শাস্তির মুখে পরতে হতে পারে তাদের। আই পি এল এমনকি বিশ্বকাপ খেলা থেকে বাদ যেতে পারেন তাঁরা। এই ঘটনার পর ঐ বিখ্যাত শো এর ঐ এপিসোড তুলে নিয়েছে শো এর প্রযোজক।
কিন্তু ঠিক কি কি বলেছিলেন হারদিক-রাহুল করণের সামনে? এই লেখাতে তা তুলে ধরার চেষ্টা করলাম। নারীবিদ্বেষী বা বর্ণবাদী - নানাভাবেই বর্ণনা করা হচ্ছে হার্দিক পান্ডিয়া ও কে এল রাহুলের ওই সব মন্তব্যকে। তবে ঘটনা হল, তারকা ক্রিকেটারদের উদ্দাম নারীসঙ্গ নিয়ে যে নানা ধরনের জল্পনা ও কাহিনি শোনা যায় - তারই এক বিচিত্র ও বিরল স্বীকারোক্তি ছিল ওই টেলিভিশন শো-তে। আর খোলাখুলি সে কথা সেদিন সেখানে স্বীকার করেছিলেন পান্ডিয়া। তিনি বলেন নাইটক্লাবের পার্টিতে তিনি এত অগুনতি মেয়ের সঙ্গে মেলামেশা করেন যে তাদের নামও জিজ্ঞেস করা হয়ে ওঠে না।

 টেলিভিশন শো-র হোস্ট করন জোহর যখন জানতে চান সেটা কেন, হার্দিক পান্ডিয়া তখন জবাব দেন, "আমার আসলে অত নাম মনে রাখতে কষ্ট হয়।" "আমি বরং আগে দেখতে ভালবাসি ওই মেয়েদের দোলচাল, চলাফেরা কেমন। আমি একটু ব্ল্যাক সাইড (কৃষ্ণাঙ্গ) ঘেঁষাই বলব, তাই ওদের নামের চেয়ে দুলুনিটাই আমার বেশি দেখার দরকার হয়!" নিজের যৌন জীবন নিয়ে গোপন তথ্য ফাঁস করার ভঙ্গীতে তিনি আরও বলেন, "যেদিন আমি প্রথম কৌমার্য ভঙ্গ করেছিলাম সেদিন বাড়ি এসে বলেছিলাম 'ম্যায় করকে আয়া হ্যায় আজ' (আমি আজ করে এসেছি)!" এ কথা শোনার পর হোস্ট করন জোহরও নিজের বিস্ময় গোপন করতে পারেননি! নিজের নারী-সঙ্গীদের নিয়ে বাড়িতেও যে তিনি ভীষণই খোলামেলা এবং গোটা ব্যাপারটাকে খুব 'কুল' বলে মনে করেন, হার্দিক পান্ডিয়া সেটা লুকোনোরও কোনও চেষ্টা করেননি।

 "একটা পার্টিতে তো একবার আমার বাবা-মা তো জিজ্ঞেসই করে ফেলেন, আচ্ছা তেরা ওয়ালা কৌন সা? (তোর সঙ্গের মেয়েটি কোনজন?)" "আমি তখন একে একে দেখিয়ে বলতে থাকি ইয়েহ, ইয়েহ, ইয়েহ (এইজন, এইজন, এইজন)" "আর ওদের তখন যেন প্রতিক্রিয়া ছিল 'ওয়াহ, প্রাউড অব ইউ বেটা' (বা:, তোর জন্য গর্ববোধ হচ্ছে রে!)", এভাবেই বাবা-মার কাছেও নিজের উদ্দাম নারীসঙ্গ জাহির করার বিবরণ দেন পান্ডিয়া। হোস্ট করন জোহরের আর একটি প্রশ্নে দুই ক্রিকেটারের কাছ থেকে দুরকম উত্তর পাওয়া গিয়েছিল। করন জোহর জিজ্ঞেস করেছিলেন, "আচ্ছা তোমরা সবাই যদি একই মহিলাকে হিট করো, তাহলে শেষ পর্যন্ত কীভাবে ঠিক হয় (যে কার কপালে শিকে ছিঁড়বে)?" কে এল রাহুল তাতে জবাব দেন, "সেটা তো মেয়েটার ওপরই নির্ভর করে"।

 প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তাকে থামিয়ে দিয়ে হার্দিক পান্ডিয়া বলে ওঠেন, "না না ওরকম কিছু মোটেও না। এগুলো আসলে ট্যালেন্ট বা প্রতিভা দিয়েই ঠিক হয়।" "জিসকো মিলা ওহ লে কে যাও (যার জুটবে সেই মেয়েটাকে সঙ্গে নিয়ে যায়)!", নাইটক্লাবের পার্টির রহস্যভেদ করে জানিয়ে দেন ভারতীয় দলের এই প্রতিভাবান ক্রিকেটার। গোটা কথোপকথনের সময় ছাব্বিশ বছর বয়সী কে এল রাহুলের মন্তব্য ছিল হার্দিক পান্ডিয়ার তুলনায় অনেকটাই সংযত, কিন্তু তাকেও এখন পান্ডিয়ার মতোই শাস্তি ভোগ করতে হচ্ছে।
DESCRIPTION OF IMAGE

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.