'ঠিকা শিক্ষক' নিয়োগ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসলে কি চান? বোঝালেন শ্যামল চক্রবর্তী।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ স্কুল গুলিতে শিক্ষক সমস্যার সমাধানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন এক নতুন উপায়ের। স্নাতক পাশদের ইন্টার্ন অর্থাৎ শিক্ষানবিশ শিক্ষক হিসেবে স্কুলে নিযুক্ত করা হবে৷ ভাতা হিসেবে দেওয়ক হবে ২০০০ এবং ২৫০০ টাকা। এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের পরেই রীতিমতো ক্ষোভ উগরে দিয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দল থেকে শুরু করে চাকরি প্রার্থীরা। এই প্রসঙ্গে শ্যামল চক্রবর্তী বলেছেন, এটি কোনো সমস্যার সমাধান করবে না। বরং একে 'ঠিকা শিক্ষক নিয়োগ' হিসেবে চিহ্নিত করা যায়। শ্যামল বাবুর দাবি, এভাবে শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত আসলে নিজের দলের কর্মীদের সুযোগ পাইয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা মাত্র।
প্রকৃতপক্ষে বঞ্চিত হবেন শিক্ষক পদপ্রার্থীরা। ফায়দা তুলবে রাজ্য সরকার। কারণ এভাবে শিক্ষানবিশ শিক্ষক নিয়োগ করলে পুরো বেতন দেওয়ার বিষয়টি আর থাকছে না, চাকরি প্রার্থীদের পরীক্ষা নিয়ে রাজ্য সরকারের আর কোনো দায়িত্ব থাকে না। এর পাশাপাশি তার আরও অভিযোগ, এভাবে শিক্ষক নিযুক্ত করার সিদ্ধান্ত আসলে নিজের দলের কর্মীদের নিয়োগের সুযোগ করে দেওয়ার সামিল। ফায়দা লুটবেন দলীয় নেতারা। একদিকে যেমন রাজ্যের চাকরি প্রার্থীদের ভবিষ্যৎ অন্ধকারে যাবে তেমনই শিক্ষার মানের চূড়ান্ত অবনতি ঘটবে এর ফলে, দাবি করেছে শিক্ষাবিদ মহল৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় এই মুহূর্তে রাজ্য জুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এক নজরে দেখে নিন কি বলছেন শ্যামল চক্রবর্তী।
"২০০০ টাকায় ইনটার্ণ ! একঢিলে কত পাখি ১) পুরো বেতন দিতে হবে না। ২) বেনামে ঠিকা শ্রমিকের আদলে নাম বদলে ঠিকা শিক্ষক নিয়োগ। ৩) নিজের দলের কর্মীদের নিয়োগ করা। ৪) এই সুযোগে বিভিন্ন স্তরের দলীয় নেতাদের কিঞ্চিৎ কামিয়ে নেবার সুযোগ। ৫) কর্মপ্রার্থীদের পরীক্ষা নিয়ে সরকারের কাপড়ে-চোপড়ে হবার আশঙ্কা থাকছে না। ৬)শিক্ষার মান ঠিক রাখার দায় নেই। এর ফলে শিক্ষার কী হাল হবে তা বুঝতে বিশেষজ্ঞ হওয়ার দরকার নেই।
এসব সিদ্ধান্ত অবলীলাক্রমে অনুমোদন করেন উপস্থিত সর্বোচ্চ শিক্ষাবিদরা। মনে পড়ে গেল ৭০ দশকে Extra Constitutional power নিয়ে দিল্লি থেকে কলকাতায় আসা এক অশিক্ষিত তরুণের ডাকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক তথাকথিত বুদ্ধিজীবী সভায় চোখে চকচকে লোভ নিয়ে আসা অধ‍্যপকে থেকে উপাচার্যদের ভূমিকা। সেই ট্রাডিশন সমানে চলছে!"
Bengali Movie Air Hostess

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.