"৬ বছর সাসপেন্ড? ততদিনে তৃণমূল দলটাই উঠে যাবে": মুকুল রায়

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ভোট মেটার পর ফলাফল সামনে আসতেই মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশুর রাজনৈতিক ভাগ্য নির্ধারিত হয়ে গেল। তৃণমূল থেকে ছ-বছর সাসপেন্ড হলেন তিনি।বারাকপুরে তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদীর হারের পর শুভ্রাংশু সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, তিনি বাবার কাছে হেরে গিয়েছেন। শুভ্রাংশুর কথায় বীজপুর বিধানসভা থেকে তিনি চেয়েছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী কে সব থেকে বেশি লিড দিতে কিন্তু বাস্তবে লিড পেয়েছে বিজেপি। এখানেই পিতার কাছে হেরে গেছেন তিনি। 
প্রসঙ্গত, মুকুল পুত্র দীর্ঘ্যদিন ধরেই গলার কাঁটা হয়ে ছিল তৃণমূলের। তৃণমূল না পারছিল তাঁকে ফেলতে না পারছিল ধরতে। পিতার কুশল রাজনিতীর প্যাঁচে রীতিমত বিপাকে ছিলেন পুত্রের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতদিনে সুযোগ এল তৃণমূলের হাতে, আর মুকুল রায় কে সাপ মারতে লাঠিও ভাঙতে হল না। দীনেশ এর হারের পর দলবিরোধী কাজের জেরে ৬ বছরের জন্যে শুভ্রাংশু কে সাসপেন্ড করল তৃণমূল। কিন্তু ছেলেকে সাসপেন্ড করা নিয়ে কি বললেন বাবা মুকুল রায়?

তিনি কটাক্ষের সুরে বলেন “তৃণমূল তো ৬ বছর থাকবেই না, আর ৬ বছরের সাসপেন্ড”! এর পাশাপাশি তিনি সাবধান করলেন পুত্র শুভ্রাংশুকে। বললেন, প্রকাশ্যে মুখ খোলায় এবার বিপাকে পড়তে হতে পারে শুভ্রাংশুকে। ওপর দিকে সাসপেনশন প্রসঙ্গে শুভ্রাংশু বলেন দমবন্ধকরা পরিস্থিতি থেকে বাঁচলাম। যেন মুক্ত বাতাসে ফিরে এলাম। একইসঙ্গে তিনি বলেন, বীজপুর, কাঁচরাপাড়া, হালিশহরে আর তৃণমূল থাকবে কি না সন্দেহ।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.