'বাঘিনী" ছবির মুক্তি নিয়ে নির্বাচন কমিশনে নির্মাতারা।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বাঘিনীর ট্রেলার মুক্তির পরই শুরু হয় জল্পনা। প্রথম থেকেই আঁচ পাওয়া গিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতার ছোটবেলা থেকে মুখ্যমন্ত্রী হওয়া পর্যন্ত জীবনের নানা কাহিনি তুলে ধরা হয়েছে ছবিতে। মমতার রাইটার্স বিল্ডিংয়ে আক্রান্ত হওয়ার সেই বিখ্যাত ঘটনা রয়েছে। কিন্তু নির্মাতাদের তরফে দাবি করা হয় ছবিটি একেবারেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বায়োপিক নয়।

 বরং তাঁর জীবন থেকে অনুপ্রাণিত। কিন্তু একথা মানতে রাজি হয়নি বিরোধীরা। সিপিএম ও বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয় 'বাঘিনী' ছবিটি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জীবন অবলম্বনে তৈরি করা হয়েছে। ফলে ভোটের মরশুমে এই ছবি বা ট্রেলার ভোটারদের প্রভাবিত করতে পারে। ট্রেলার মুক্তির পরই অভিযোগ ওঠে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের। অতি অল্প সময়ের ব্যবধানে কমিশনের তরফে 'বাঘিনী'র ট্রেলারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ফলে ছবির মুক্তি নিয়ে তৈরি হয় ধোঁয়াশা। ট্রেলারে নিষেধাজ্ঞা জারির পর কমিশনের নির্দেশিকা মেনেই নির্বাচনের পরে ছবিটি মুক্তির সিদ্ধান্ত নেয় নির্মাতারা।

 এই মর্মে নির্বাচন কমিশনে চিঠিও পাঠানো হয়। সেইসঙ্গে কমিশনের সঙ্গে আলোচনার জন্য সময় চেয়ে আবেদন জানান তাঁরা। অভিযোগ, কমিশন সেই চিঠির কোনও উত্তর দেয়নি। পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী পরশু মুক্তি পাওয়ার কথা 'বাঘিনী'র। কিন্তু, এখনও ছবি মুক্তির দিন নিয়ে কোনও নির্দিষ্ট তথ্য নেই নির্মাতাদের কাছে। সেই কারণে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ 'বাঘিনী'র নির্মাতারা। এদিন কমিশন ও টিম 'বাঘিনী' বৈঠকের পরই স্পষ্ট হবে ছবি মুক্তির ভবিষ্যত্।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.