মূর্তি ভাঙাকে কেন্দ্র করে তীব্র প্রতিবাদে বিশিষ্ট জনেরা।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙাকে কেন্দ্র করে গরম রাজ্য রাজনীতি। এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করছেন সাধারণ মানুষ থেকে বিশিষ্ট জনেরা। ফেসবুক, হোয়াটাসঅ্যাপ সহ নানা সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন সবাই। সরব সমাজের নানা মহলের বিশিষ্টজনেরাও। এদিনের ঘটনা প্রসঙ্গে কবি শঙ্খ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, অধঃপতনের আর কোনও সীমা রইল না। নিন্দার ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না।
 মুখ খুলেছেন কবি সুবোধ সরকার। তাঁর ব্যাখ্যায়, ''এ এক কালো দিন।'' তিনি বলেন, ''মঙ্গলবার যেভাবে শিউরে উঠলাম, সেভাবে কখনও কেঁপে উঠিনি। এ কোন কলকাতা? এত কুত্সিত কলকাতা কোথায় লুকিয়ে ছিল? অমিত শাহর উপস্থিতিতে সেই কলকাতা বেরিয়ে এল। এরা কী আমাদের আর কলকাতায় থাকতে দেবে? যেভাবে আপনাকে চুরমার করে ফেলে গেল, যেভাবে বিদ্যাসাগরকে অপমান করল, যেভাবে বাংলাভাষাকে অপমান করে গেল, যেভাবে তান্ডব চালাল কলেজ স্ট্রিটে — এর চেয়ে কালো দিন আর কী হতে পারে? কিন্তু আমার বিশ্বাস বিদ্যাসাগরের প্রতিটা টুকরো থেকে জন্ম নেবে নতুন ভারতবর্ষ।''
 কবি জয় গোস্বামীর ব্যাখায়, এরা মানুষ? এরাতো বর্বর। এরা দেশ সাসন করবে কী করে? সাম্প্রদায়িক বিষ ছড়ানো যারা কিছু বোঝে না তারা বিদ্যাসাগরের মর্ম বুঝবে? এতো ভাবাটাও অন্যায়।অভিনেতা কৌশিক সেনের মতে, বিদ্যাসাগর ওদের পাঠ্যক্রমের বাইরে। তাই ওরা বিদ্যাসাগরের বোধ, চেতনা বুঝতে পারবে না। তাই এরা বিদ্যাসাগরের মূর্তি বাঙবে না তো কারা ভাঙবে?
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.