বিদ্যাসাগরের মূর্তি কারা ভাঙলেন? সিসি ক্যামেরা খারাপ থাকার কারণে অপরাধীদের চিহ্নিত করতে সমস্যা

নজরবন্দি ব্যুরো: বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের মঙ্গলবারের রোড শো ঘিরে ভাঙচুরের পরে বিজেপির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ ওঠে। এই রোড শো ঘিরে গোলমালের জেরে একদল বিজেপি সমর্থক বিদ্যাসাগর কলেজে ঢুকে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙচুর করেন। কিন্তু তারা কি বিজেপি সমর্থক, নাকি অন্য দলের সমর্থক। তা নিয়ে বিতর্ক ছিলই। বিজেপির তরফে বলা হয়েছে এই কাজ করেছে তৃণমূল সমর্থকরা। আবার তৃণমূল নেতারা ভিডিও ফুটেজ দেখিয়ে দাবি করেছেন এই কাজের সাথে যুক্ত বিজেপি।
তাহলে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙলেন কারা? এই প্রশ্নের সমাধান করতে গিয়ে হিমসিম খাচ্ছে প্রশাসন। কারণ, কিছু দিন ধরেই কলেজের সিসি ক্যামেরা অকেজো হয়ে পড়ে রয়েছে। কলেজের শিক্ষকেরাই বিষয়টি এ দিন স্বীকার করে নেন।
তাঁরা জানান, কিছু দিন ধরেই কলেজের ক্যামেরার হার্ড ডিস্ক খারাপ থাকায় রেকর্ডিং বন্ধ। ফলে মঙ্গলবারের ওই তাণ্ডবের ঘটনা সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েনি। যার জন্য  পুলিশ এবং কলেজ কর্তৃপক্ষ— দু’তরফের কাছেই ভিডিয়ো ফুটেজ বলতে এখন ভরসা বৈদ্যুতিন মাধ্যমের ছবি এবং মোবাইলের কিছু ফুটেজ।

সেদিন যে ঘরে তাণ্ডব চালানো হয়েছিল ঘটনার সময়ে সেখানেই ছিলেন কলেজের কেয়ারটেকার শান্তিরঞ্জন মোহান্তি। তিনি বলেন, ‘‘সিসিটিভি ঠিক থাকলে দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করতে সুবিধা হত। অফিস ঘরের বাইরে আমি দাঁড়িয়েছিলাম। একটা আধলা ইট আমার গায়ে এসে পড়ে।
এর পরেই কয়েকটা লোক দরজা ভেঙে লাঠি নিয়ে ভিতরে ঢুকে পড়ে। কাচ ভাঙতে থাকে, চেয়ার টেবিল উল্টে ফেলে। তার পরে বিদ্যাসাগরের মূর্তি তুলে বাইরে নিয়ে যায়।’’ তিনি জানান, তাঁরা ভয়ে ওই ঘর ছেড়ে বেরিয়ে এসে পাশের ঘরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। ফলে দুষ্কৃতীদের ভাল করে দেখা সম্ভব হয়নি।

Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.