দেশে ফিরে বোর্ডের সামনে হারারে কারণ জানাতে হবে শাস্ত্রী-কোহেলিকে।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ সেমি ফাইনালে হারার পর গোটা দেশের হৃদয় যখন ভেঙে চুরমার। প্রধানমন্ত্রী লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে যে সার্টিফিকেট দিয়েছেন, তাকে কি প্রশাসক হিসেবে বিনোদ রাই চ্যালেঞ্জ জানালেন? কারণ দল দেশে ফিরলেই কোচ ও অধিনায়কের সাথে আলোচনায় বসবেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স এর প্রধান বিনোদ রাই। তাই ব্যাপার তা ঠিক তা নয় আসলে দেশের মানুষের অধিকাংশ নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে যাওয়ার ব্যাপারটা মেনে নিতে পারেননি। সেই কারনেই কোথায় কী হল, হারের কারণ কী কী, প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও কেন এভাবে মুখ থুবড়ে পড়তে হল ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা হবে প্রধানত।
 এছারাও আলোচনা হতে পারে রায়ডু কে নিয়ে। প্রশ্ন উঠতে পারে যে চার নম্বর জায়গা নিয়ে নির্বাচকরা যদি নিশ্চিত হতে না'ই পারেন তাহলে বিশ্বকাপের আগে তাঁকে নিয়মিত খেলানো হয়েছিল কেন? রায়ডুকে ওয়েটিং লিস্টে রাখার পরও রিজার্ভ লিস্টে থাকা রায়ডুকে উপেক্ষা করে ডেকে নেওয়া হয়েছিল ওপেনার ময়াঙ্ক আগরওয়ালকে। দ্বিতীয় প্রশ্ন উঠে আসতে পারে বিশ্বকাপ দলে তিন জন উইকেটকিপারের থাকা নিয়ে। ধোনি তো ছিলেনই, সঙ্গে ছিলেন কার্তিক ও ঋষভ।
এছাড়াও জানতে চাওয়া হতে পারে সেমিফাইনালে ধোনিকে সাত নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানো হল কেন? শোনা যাচ্ছে, ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গার নাকি কোচ শাস্ত্রীর অনুমতি নিয়েই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বলে মনে করা হচ্ছে। ফলে দেশে ফেরার পর বেশ কিছু অস্বস্তিকর প্রশ্নের মুখে পরতে হবে শাস্ত্রী ও বিরাট কে সে কথা বলাই যায়।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.