"ফেসঅ্যাপ হারাম" কেন ব্যাখ্যা করলেন মৌলানা! বিরোধিতা মুসলিম পড়ুয়াদের।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ 'ফেসঅ্যাপ' বেশ কিছুদিন ধরেই এই অ্যাপ সাড়া ফেলেছে মার্কেটে। বুড়ো বয়সে আপনাকে দেখতে কেমন লাগবে? সেটা দেখতেই মজেছে তরুন প্রজন্ম। বাদ যান নি তারকা রাও। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাবহারকারী কমবেশি ৮০% লোক এই ফেসঅ্যাপ একবার হলেও ব্যাবহার করে দেখেছেন। ২০১৭-এর শুরুর দিকে আত্মপ্রকাশ করা ফেসঅ্যাপের আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার করে সহজেই কারও চেহারাকে কমবয়সি বা বুড়ো করে দেখা যেতে পারে। শুধু তাই নয়, পুরুষ হয়ে যেতে পারেন মহিলা বা মহিলা মিনিটে হয়ে যেতে পারেন পুরুষ।
এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে ওঠা ফেসঅ্যাপ কে হারাম বা অপবিত্র আখ্যা দিলেন ঝাড়খণ্ডের এক মৌলানা, নাম কুতুবুদ্দিন রিজভি। তাঁর মতে, এই অ্যাপ সম্পূর্ণ অপবিত্র বা হারাম! কারন ফেসঅ্যাপে নিজেদের মুখ বা বয়স নিয়ে কারিকুরি করা আল্লাহ বা ঈশ্বরের নিয়মবিরুদ্ধ। এতে ঈশ্বর বা আল্লা কুপিত হবেন এবং যাঁরা এসব করছেন তাঁদের শাস্তি দেবেন।
যদিও তাঁর এই বক্তব্যের বিরোধিতা করেছেন রাঁচির মুশলমান ছাত্র-ছাত্রীরাই। তাঁদের মতে এটা নিছক মজা করার জিনিশ, সব কিছুর সাথে ধর্মকে গুলিয়ে ফেলা উচিত নয়।
উল্লেখ্য, কুতুবুদ্দিন রিজভি ঝাড়খণ্ডের আদার এ শরিয়ার নাজিম এ আলার মৌলানা। 
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.