প্রাথমিক শিক্ষক বিদ্রোহ ছড়াচ্ছে রাজ্যজুড়ে, পাশে দাঁড়িয়ে শঙ্খ ঘোষ বললেন লজ্জা করছে! #Exclusive

নজরবন্দি ব্যুরোঃ যোগ্যতা অনুযায়ী বেতনের দাবিতে প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠন UUPTWA পা বাড়িয়েছে আন্দোলনের পথে। চলছে আমরন অনশন, আজ পঞ্চম দিন।  NCTE দ্বারা নির্ধারিত যোগ্যতা না থাকলে প্রাথমিক শিক্ষকরা শিক্ষকতাই করতে পারতেন না। আগে যোগ্যতামান ছিল মাধ্যমিক পাশ। বর্তমানে HS ৫০% বা Graduate সঙ্গে ডিএলএড ট্রেনিং না থাকলে হওয়া যায়না প্রাথমিক শিক্ষক। এহেন যোগ্যতা নিয়ে শিক্ষকতা করবেন, আর বেতনের বেলায় সেই পুরনো মাধ্যমিক মান অনুযায়ী PB-২ তে তাঁরা বেতন পাবেন! এরই প্রতিবাদ করতে রাস্তায় নেমেছে আপামর প্রাথমিক শিক্ষক কূল।

কিন্তু ৫ দিন যেখানে বয়েশ হতে চলেছে অনশনের সেখানে রাজ্য সরকারের ভূমিকা কি? এখন পর্যন্ত 'প্রচ্ছন্ন হুমকি' ছাড়া তেমন কোন ভূমিকাই নেই।
অন্যদিকে, নিজেদের যোগ্যতা অনুযায়ী (PRT স্কেল) ন্যায্য পাওনার দাবিতে এবং চোদ্দ জন সহযোদ্ধার অনৈতিক বদলি প্রত্যাহারের দাবিতে গত ১২ তারিখ থেকে অবস্থান বিক্ষোভ ও ১৩ তারিখ দুপুর একটা থেকে অনশন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন প্রাথমিক শিক্ষকরা। এই অবস্থায় ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবলল্লভ পুরে UUPTWA র অনশন ও অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচিকে পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে এবং মাননীয়া মূখ্যমন্ত্রীর দ্রুত হস্তক্ষেপের দাবিতে সংগঠিত হলো পদযাত্রা ও পথসভা। উপস্থিত ছিলেন UUPTWA র সদস্যবৃন্দ, BPTA , STEA এবং ABPTAএর প্রতিনিধিবৃন্দ। তাঁরা বলেন, "এই আন্দোলন বেতন বৃদ্ধির আন্দোলন নয় এই আন্দোলন যোগ্যতা অনুযায়ী বেতনের আন্দোলন, অন্যায় বদলির বিরুদ্ধে ন্যায় প্রতিষ্ঠার আন্দোলন. এই আন্দোলন শাসকের বঞ্চনা, অবহেলা, অবহেলার প্রতিবাদে রুখে দাঁড়ানোর আন্দোলন. তাই আমারা সমাজের সকলকেই পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাই"
উল্লেখ্য, আজ বিখ্যাত কবি এবং নাগরিক সমাজের প্রতিষ্ঠিত ব্যাক্তিত্ব শঙ্খ ঘোষ এই ইস্যুতে এক বার্তায় জানান, তিনি নিতান্ত অসহায় বোধ করছেন একজন নাগরিক হিসেবে। তিনি জানিয়ে দেন নাগরিক সমাজের চোখের সামনে রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকরা অনশন করছেন আর তা দেখতে হচ্ছে এটা অত্যন্ত লজ্জার।তিনি আশা প্রকাশ করেন সরকার শেষপর্যন্ত সদর্থক ভূমিকা নেবে।
দেখুন শঙ্খ ঘোষের চিঠি।

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.