বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে কি হবে সরকারের পদক্ষেপ? আবার আসরে উস্থি!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন বিগত দেড় বছর ধরে পশ্চিম বঙ্গের প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বঞ্চনার বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসছে।গতকাল ৩০/০৮/২০১৯ হাওড়া জেলার বিভিন্ন সার্কেলে থেকে কয়েক হাজার শিক্ষক শিক্ষিকা এক বিশাল মিছিল সহকারে হাওড়া জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক(প্রাথমিক) কে ডেপুটেশন দেয়,  তাদের মূল দাবি সর্বভারতীয় বেতন কাঠামো অর্থাৎ অন্যান্য রাজ্যের ন্যায় বেতন কাঠামো মেনে পিবি ৪ কাঠামোয় বেতন।

 গত ২৬শে জুলাই শিক্ষামন্ত্রীর কথার সম্মান জানিয়ে ১৪ জন উস্হিয়ানের বদলি রদ ও রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে কোনো বেতন বঞ্চনা থাকবে না বলে পি বি ২ থেকে পিবি ৩ স্কেল পরিবর্তন এর G.O. বার করায় তারা তাদের অনশন কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন।
কিন্তু বাস্তব চিত্র দেখা গেল অন্যরকম! উস্হির দাবি মেনে অবৈধ বদলি প্রাপ্ত শিক্ষক দের নিজের সার্কেলে ফিরিয়ে দিলেও সঠিক ফিটমেন্ট ফ্যাক্টর সহ নতুন বেতন কাঠামো গঠনের বিজ্ঞপ্তি নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। তাই উস্হি ইউনাইটেড জুনিয়ার ও সিনিয়র শিক্ষকদের সমানুপাতিক হারে সঠিক ফিটমেন্ট ফ্যাক্টর দিয়ে যাতে বেতন কাঠামো পুননির্ধারণ করা হয় তার জন্য ডেপুটেশন দেওয়া হয়।
ডেপুটেশন কর্মসূচি তে উপস্থিতি হয়ে সংগঠনের সম্পাদিকা পৃথা বিশ্বাস, সভাপতি সন্দীপ ঘোষ, সহ সভাপতি শান্তনু মন্ডল ও কোর কমিটির সদস্য তথা হাওড়া জেলার অবজার্ভর অনুপ সাহু বলেন সরকার তার কথা মতো যদি বেতন বৈষম্য দূর করার বিষয়ে আবারো ভুল সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে আগামী দিনে আবারো লক্ষাধিক শিক্ষক সহ কোলকাতার রাজপথে বৃহত্তর আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবেন। শিক্ষকদের হুঁশিয়ারি  "এখন সরকারই সিদ্ধান্ত নিক শিক্ষক দিবসের আগেই সরকার এই বিষয়ে সঠিক পদক্ষেপ নেবে.. না কি আবারো বৃহত্তম আন্দোলন নামতে বাধ্য করাবেন শিক্ষকদের!
উল্লেখ্য উস্থির পক্ষ থেকে বিকাশ ভবনের অদূরে কিছুদিন আগেই টানা ১৪ দিন অনশন-ধর্নায় বসেছিলেন শিক্ষকরা। রাজ্য রাজনীতি তোলপাড় হয়েগিয়েছিল সেই আন্দোলনের ফলে। 
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.