শিক্ষকদের প্রতি বিমাতৃসুলভ আচরনের অভিযোগ! সরকার ফেলে দেওয়ার হুঁশিয়ারি।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ রাজ্যে বিজেপির উত্থান আর তৃণমূলের ক্রমাগত ব্যাকফুটে চলে যাওয়াকে কাজে লাগাতে বদ্ধ পরিকর রাজ্যের চাকরি প্রার্থী, শিক্ষক, চুক্তি ভিত্তিক কর্মী সহ আরও অনেকে। উল্লেখ্য সম্প্রতি ঘটে যাওয়া লোকসভা নির্বাচনের প্রেক্ষিতে রাজ্যের ২৯৪ টি বিধানসভা আসনের মধ্যে তৃণমূল অর্থাৎ শাসক দল ১৫৮ আর বিজেপি ১২৮টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। যা শাসক দলের পক্ষে ঘর পোড়া গরুর সিঁদুরে মেঘ দেখার অবস্থার মতই ইঙ্গিতবহ।
 এই অবস্থায় রাজ্য সরকার কে সরাসরি হুঁশিয়ারি দিল West Bengal School Computer Teacher Welfare Association.
তাঁদের অভিযোগ, কম্পিউটার শিক্ষকদেরকে দেওয়া কথা রাখেননি শিক্ষামন্ত্রী, আর Data Entry & Systems Operator দেরকেও দেওয়া কথা রাখছেন না মুখ্যমন্ত্রী এমনকি দাবি আদায়ের জন্য পথে নেমে আন্দোলনও করার স্বাধীনতা কের নিয়েছে রাজ্য সরকার। প্রাইমারি শিক্ষকদের আন্দোলনের তীব্রতা এবং বিক্ষোভ ক্ষমতা দেখে, বাকি বঞ্চিত আন্দোলনকারীদের ঐক্যবদ্ধ শক্তিকে দমন করার নোংরা পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকারের প্রশাসন। লাঠি, জলকমান, আরেস্ট, চার্জশীট ইত্যাদি দিয়ে কম্পিউটার শিক্ষক, বৃত্তিমূলক শিক্ষক, SSK, MSK, শিক্ষা বন্ধু, স্বাথ্য কর্মী, আসা কর্মী এবং অন্যান্য চুক্তিভিত্তিক আন্দোলন থামাতে না পেরে, বিগত এক বছরে যেখানে বিক্ষোভ কর্মসূচি হয়েছে, সব জায়গায় অন্যায় ভাবে ১৪৪ ধরা লাগু করে দেওয়া হয়েছে। এমনকি বাদ যায়নি কারুনাময়ী বাস স্ট্যান্ডও।
মুখ্যমন্ত্রী যখন ইচ্ছা চাইলে ধর্ণায় বসতে পারেন, সেটা সিঙ্গুর হোক বা মেট্রো চ্যানেল। কিন্তু অন্য সবাইকে আন্দোনের অধিকার কেড়ে নিয়েছে রাজ্য সরকার প্রশাসন। এই অবস্থায় রাজ্যের সমস্ত কম্পিউটার শিক্ষক, DEO, SSP, Data Manager, Accounts cum Data Manager, Accountant, Supervisor, Programmer Coordinator, PA, System Operator দের ঐক্যবদ্ধ হতে আবহান জানাচ্ছে West Bengal School Computer Teacher Welfare Association." তাঁদের হুঁশিয়ারি "যুদ্ধ ঘোষণা হয়ে গেছে। প্রতিশ্রুতি সরকারকে প্রাক্তন সরকারে পরিণত করার ক্ষমতা রাখি। সুপ্রিম কোর্টের বিচার অনুযায়ী সম কাজে সম বেতন দিতে হবে। সেটা পূর্ণ সরকারি কর্মী হোক কিংবা আধা সরকারি কর্মী কিংবা ঠিকাদারি কর্মী, চুক্তি ভিত্তিক কর্মী সবার ক্ষেত্রেই।"
West Bengal School Computer Teacher Welfare Association এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে রাজ্যের সমস্ত কম্পিউটার শিক্ষক, DEO, SSP, Data Manager, Accounts cum Data Manager, Accountant, Supervisor, Programmer Coordinator, PA, System Operator রা ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। সরকার কে তাঁদের হুঁশিয়ারি " আমাদের ন্যায্য বেতন প্রদান করুন। নাহলে আমরা Pen Down / Mouse , Keyboard, Computer Shut Down আন্দোলনে নামবো। প্রতি স্কুলে এবং সরকারি অফিসে নিজেরা কম্পিউটারে কাজ করবো না, আর না অন্য কেউকে করতে দেবো না।" তাঁদের দাবি,
" ১. ন্যায্য বেতন প্রদান (সুপ্রিম কোর্টের বিচার অনুযায়ী সম কাজে সম বেতন দিতে হবে। সেটা পূর্ণ সরকারি কর্মী হোক কিংবা আধা সরকারি কর্মী কিংবা ঠিকাদারি কর্মী, চুক্তি ভিত্তিক কর্মী সবার ক্ষেত্রেই।)
২. ঠিকাদারি প্রথা বাতিল করে, চাকরির সারকারিকরণ
৩. 60 বছরের কাজের স্থায়িকরণ মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীকে তাঁদের প্রশ্ন, "ম্যাডাম তারপর আপনার কন্যাশ্রী, শিক্ষাশ্রী, সবুজ সাথী, বাংলার শিক্ষা, উৎকর্ষ বাংলা, স্বাস্থ সাথী, যুবশ্রী, মাইনরিটি, মুক্তিধারা, লোকপ্রসার, NREGS, SHG, BCW, SNCU, হেলথ প্রজেক্ট, মিড ডে মিল, TREASURY, E-district, E-Services, wb registration, wb vahan, এগিয়ে বাংলা, ডিজিটাল বাংলা ইত্যাদি আমাদের সহযোগিতা ছাড়া চালাতে পারবেন তো??"
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.