Header Ads

দেশদ্রোহী মমতা, বিজেপি-র পায়ে ধরবে অথচ লোকে জানবে না! বিস্ফোরক মুকুল।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে নজিরবিহীন আক্রমন করলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পদ্ধতিগত ত্রুটির অভিযোগ তুলেছেন। তাঁর ব্যাখ্যায় কেন্দ্রীয় সরকার ভুল করেছে। এই নিয়েই মুকুল বিঁধলেন মমতা কে।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাশ্মীর ইস্যুতে পদ্ধতিগত ভুল ধরার আগে পুলওয়ামা ইস্যুতেও কেন্দ্রের সমালোচনা করেছিলেন। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে দেশদ্রোহী আখ্যা দিলেন মুকুল রায়। তিনি বলেন, মমতা ব্যানার্জী দেশদ্রোহী। পুলওয়ামা ঘটনার সময়েও উনি আঙ্গুল তুলেছিলেন ভারতীয় সেনার দিকে। এবার পদ্ধতিগত ভুল ধরতে এসেছেন কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের। মুকুল রায় প্রশ্ন করেন, কিসের ভুল? উনি বলছেন পদ্ধতিগত ভুল হয়েছে! উনি সংবিধান বিশেষজ্ঞ না কি? যা হয়েছে সংবিধান মেনেই হয়েছে। পাশাপাশি তাঁর কটাক্ষ, "বিজেপির পায়ে ধরব, কিন্তু লোকে জানবে না!"
প্রসঙ্গত, কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করেছে কেন্দ্র। রাজ্যসভা এবং লোকসভায় পাশ হয়েছে বিল। সই করেছেন রাষ্ট্রপতি।
একনজরে দেখেনিন এই ধারা প্রত্যাহারের ফলে কি কি হতে চলেছে...
১) কাশ্মীরের আলাদা কোনো পতাকা থাকবে না । এখন থেকে শুধুমাত্র ভারতের পতাকাই কাশ্মীরের আকাশে উড়বে । ২) ভারতবর্ষের সাধারণ নাগরিক হিসেবে আপনি এখন থেকে কাশ্মীরে গিয়ে জমি ও সম্পত্তি কিনতে পারবেন। সেই অধিকার এতদিন আপনার ছিলনা । ৩) এতদিন জম্মু কাশ্মীরের কোনো সরকারি চাকরিতে অন্য কোনো রাজ্যের মানুষ অংশ নিতে পারতেন না , এবার সেই অধিকার পেলেন আপনি । ৩) জম্মু কাশ্মীরে ভারতের আইন লাগু হবে। অন্য কোন আইন চলবে না।
৪) কাশ্মীরের বাসিন্দাদের জন্য আলাদা কোনো নাগরিকত্ব থাকবে না। তাঁরাও আজ থেকে ভারতীয় হিসেবে গণ্য হবেন । ৫) বিধানসভা ভোট ছয় বছরের জায়গায় অন্য রাজ্যের মত পাঁচ বছর ছাড়া হবে। ৭) কাশ্মীরের কোন ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্ট এতদিন হস্তক্ষেপ করতে পারত না। এখন থেকে সুপ্রিম কোর্টের আওতায় চলে এলো কাশ্মীর । ৮) এখন থেকে কাশ্মীরে আইএস বা পাকিস্তান সহ অন্য দেশের পতাকা ওড়ালে সংবিধান অনুযায়ী ব্যাবস্থা নেওয়া যাবে। ৯) শুধুমাত্র বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমেই পাকিস্থানিরা কাশ্মীরের নাগরিকত্ব পেয়ে যেত, এখন থেকে সে পথ সম্পূর্ন রূপে বন্ধ হয়ে গেল।
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.