মিষ্টিমুখেই তাড়ান মানসিক অবসাদ! খান ডার্ক চকোলেট। #SpecialArticle

অদ্রিজা ঘোষঃ একবিংশ শতাব্দিতে মানসিক অবসাদ প্রায় মহামারীর আকার ধারন করেছে। গোটা পৃথিবীতে ৩০০ কোটি মানুষ আজ মানসিক অবসাদে ভুগছেন। সোশাল নেটওয়ার্কের friend লিস্টে ১০০০ বন্ধু থাকলেও বাস্তব জীবনে প্রকৃত বন্ধুর সংখ্যা হয়ত শূন্য। যৌথ পরিবার ভেঙে হচ্ছে একক পরিবার, ছাত্রজীবনে বাড়ছে অধিক প্রত্যাশা, কর্মক্ষেত্রে বাড়ছে অত্যধিক কাজের চাপ। আর এই সমস্ত বিভিন্ন কারনে বাড়ছে মানসিক অবসাদ। যার ফলস্বরূপ বাড়ছে আত্মহত্যা,সম্পর্কের অবনতি ইত্যাদি নানান সমস্যা। তবে মুক্তির উপায়?
আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রা এর জন্য অনেকটাই দায়ী। প্রতিদিন সঠিক খাদ্যাভাস, শরীরচর্চা,গান শোনা এবং নিজের শখ এইসবে সময় দিলে আমরা মানসিক অবসাদ থেকে অনেক দূরে থাকতে পারব। তবে, আধুনিক কালের গবেষনা থেকে কিন্তু একটা ভারী চিত্তাকর্ষক তথ্য উঠে এসেছে। Institute of Epidemiology and Healthcare এর Dr.Sarah Jackson এর মতে ডার্ক চকোলেট পরিমানমতো মাঝে মাঝে খেলে মানসিক অবসাদ থেকে অনেকটাই দূরে থাকা যায়। কারন ডার্ক চকোলেট এর মধ্যে রয়েছে Phenylethylamine, যা মানুষের মন ভাল রাখতে সাহায্য করে। এটি মানুষের মস্তিষ্কে Endorphin ও Serotonin এর মাত্রা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।
Serotonin হল মস্তিষ্কের একটি অন্যতম স্নায়ু-প্রেরক(Neuro-Modulator), যার হ্রাসের ফলে মানবদেহের স্নায়বিক উত্তেজনা হ্রাস ঘটে এবং এর ফলেই মানুষ অবসাদগ্রস্থ হয়ে পড়ে। তাই ডার্ক চকোলেট কোন অবসাদগ্রস্থ মানুষ খেলে তৎক্ষনাৎ অবসাদের পরিমান অনেকটাই কমে যায়। তবে অবশ্যই অত্যধিক মাত্রায় নয়, পরিমানমতো খাওয়া উচিত। তাই, সর্বদা হাসিখুশি থাকুন,শরীরচর্চা করুন, আনন্দ এবং দুঃখ সমানভাবে সকলের সাথে ভাগ করে নিয়ে মনকে সর্বদা তরতাজা রাখুন। আর অবসাদের ছায়া জীবনে পড়লে আত্ম্যহত্যা নয়, ডার্ক চকোলেট খেয়ে মিষ্টত্বের মাধ্যমে সমাধান করুন।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.