রাজ্যে এনআরসি নিয়ে মমতার মুখে "দমদম দাওয়াই"

নজরবন্দি ব্যুরো: বৃহস্পতিবার জাতীয় নাগরিকপুঞ্জীর বিরোধিতা করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিথির মোড় থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত পদযাত্রায় হেটেছেন। আর এই পদযাত্রার শেষে মুখ্যমন্ত্রী এনআরসির বিরুদ্ধে মুখ খুলতে গিয়ে 'দমদম দাওয়াই' এর প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন। ১৯৬৩ থেকে ১৯৮৩ সাল দমদম অঞ্চলে রাজনৈতিক খুনোখুনি,হিংসা নিত্যদিনের বিষয় হয়ে উঠেছিল। শান্তি রক্ষা আর শান্তি স্থাপনের অছিলায় মিথ্যে মামলার রাজনীতি,দুস্কৃতি তাণ্ডব হয়ে উঠেছিল তখনকার সংবাদপত্রের কাছে শিরোনাম। দমদম অঞ্চল জুড়ে দুস্কৃতি তাণ্ডব আর খুনের রাজনীতি এবং মিথ্যে মামলায় জর্জরিত করার চক্রান্তের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিল দমদমের নাগরিক সমাজ।
ক্রিয়ার প্রতিক্রিয়াতে গড়ে উঠেছিল মহল্লা, পাড়া জুড়ে শান্তি কমিটি। শান্তি কমিটির ব্যানারে শান্তি বাহিনী। অশান্ত ১৯৭০ এর দশকে অরাজকতা,নৈরাজ্য, হিংসার অন্ধকার চোরা গলি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য দমদমের নাগরিক সমাজ অধ্যাপক ল্যাস্কির 'প্রতিরোধের তত্ত্বকে' বেছে নিয়েছিল জীবন- জীবিকা এবং নিজেদের সম্পত্তি রক্ষার জন্য। ঘরের মেয়েদের ইজ্জত রক্ষার জন্য "দমদম দাওয়াই" হয়ে উঠেছিল মহাওষুধ। দমদম দাওয়াই সুখ্যাতি অথবা কুখ্যাতির জালে আটিকে না থেকে সারা রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছিল। রাজ্যের মানুষ প্রতিরোধের হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছিল দমদম দাওয়াইকে। এবার নাগরিকপুঞ্জী বা এনআরসি বিরোধিতা করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে দমদম দাওয়াই এর প্রসঙ্গ। সব মিলিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে এনআরসি ইস্যু হাওয়া লাগতে শুরু করেছে।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.