মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি পাঠিয়ে কাতর আবেদন উচ্চ প্রাথমিক চাকরি প্রার্থীর। #Exclusive

নজরবন্দি ব্যুরোঃ রাজ্য জুড়ে চলছে শিক্ষক বিক্ষোভ, বিদ্রোহ। শিক্ষক দিবসের দিন রাজ্যের শিক্ষকেরা নজিরবিহীনভাবে কালো ব্যাজ পরে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। ন্যায্য দাবি আদায়ের জন্য পা মিলিয়েছেন মহামিছিলে। নেতাজি ইন্ডোর থেকে শিক্ষক দিবসের দিনেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শিক্ষকদের দাবি পুরনের প্রতিশ্রতি দেওয়ার পাশাপাশি রাজ্য সরকারের অর্থের অভাবে বিষয়টিও সামনে এনেছেন। কিন্তু বিক্ষোভ এবং ক্ষোভ এতটুকুও কমেনি।
এবার রাজ্য সরকারের উচ্চ প্রাথমিক পদে পরীক্ষা দেওয়া এক পরীক্ষার্থী মুখ্যমন্ত্রীকে খোলা চিঠি লিখে ফেলেছেন। এই চিঠির ছত্রে ছত্রে ঝরে পড়েছে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অসন্তোষ। সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সমস্যা সমাধানের কাতর আকুতি। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগের বিঞ্জপ্তি বের হয়েছিল। শূন্যপদ ছিল ১৪০০০ হাজারের কাছাকাছি। কিন্তু দীর্ঘ ৫ বছর ধরে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে আছে। বিকাশ ভবনে গেলে সরকারি কর্মচারিদের মুখে সমস্যা সমাধানের পথ বাতলে দেওয়ার বদলে মেলে উপদেশ কিংবা আইনি জটে জড়িয়ে দেওয়ার নিরন্তর প্রচেষ্টা। ইতিমধ্যেই ইন্টারভিউ হয়ে গিয়েছে ৩০০০০ জনের। এরই মধ্যে শূন্যপদের সংখ্যা বেড়েছে, সংখ্যাটা মোট ৩৪০০০ টি। এই অবস্থায় এই খোলা চিঠি রাজ্য সরকারের শীতঘুম ভাঙিয়ে তুলতে পারবে! নজর সেইদিকে।

দেখুন নজরবন্দির মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রীকে পাঠানো সেই চিঠি
 মাননীয়া দিদি, 
 আপনার নিকট বিনীত নিবেদন যে আমি বর্তমানে এম এ , বি এড এছাড়া আপার প্রাইমারি পাশ করে দীর্ঘ ৫ বছর বসে আছি , আমার মতাে অনেকেরই একই অবস্থা। আলােচ্য সমস্যাটি হল আপার প্রাইমারি প্রথম বিজ্ঞপ্তি ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে যখন দিয়েছিল শূণ্যপদ প্রকাশিত হয়েছিল ১৪০০০ চোদ্দো হাজারের কাছাকাছি। কিন্তু দীর্ঘ ৫ বছর অতিক্রম হয়ে গিয়েও বর্তমানে বিকাস ভবন সেই ১৪০০০ শূণ্যপদ আছে বলে জানাচ্ছে। আবার এদিকে আপার প্রাইমারি ইণ্টারভিউ করিয়েছেন ৩০০০০ জনকে।
যার ফলে বেশিরভাগই বাদ যেতে চলেছে এবং অনেকের বয়স ও শেষ হচ্ছে যার ফলে ভবিষ্যতে পরীক্ষায় বসতে পারবেনা। কিন্তু বিভিন্ন সূত্র মারফৎ এই ৫ বছরে আরও ২০০০০ শূণ্যপদ অর্থাৎ মােট ৩৪০০০ হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। বেশি কিছু বলতে গেলে বিকাস ভবন বলছে কোর্টে কেস করো , নবান্নে বা দিদির বাড়িতে গিয়ে জানাও তাই উক্ত সমস্যাটি পর্যালােচনা করিয়া অর্থদপ্তরের অনুমােদন লইয়া যদি শূণ্যপদ বৃদ্ধি করেন হাজার হাজার পরিক্ষার্থীর বেকারত্ব দূর হবে এবং আপনার নিকট চীরকৃতজ্ঞ থাকিবে।
 ধন্যবাদান্তে উচ্চ প্রাথমিক পরিক্ষার্থী


Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.