শিল্পায়নের দাবিতে বাম মনস্ক তরুন,তুর্কীদের পদযাত্রায় বিপুল সাড়া! আজও প্রাসঙ্গিক বামেরা৷

অরুনাভ সেনঃ ন্যানোর স্বপ্ন অনেকদিন আগেই ভেঙে খানখান হয়েছে৷ন্যানোকে ঘিরে কর্মসংস্থানের যে স্বপ্ন বাংলার মানুষ দেখেছিলেন সেই স্বপ্ন কবে রাজনীতির ঘূর্ণাবর্তে ধ্বংস হয়েছে৷কিন্তু বামপন্থীরা আজও বিশ্বাস করেন গঠনমূলক রাজনীতিতে৷মেরুকরনের রাজনীতি নয় তাদের রাজনীতির ভিতটাই সর্বদা অন্যরকম মানুষের খাদ্য,বস্ত্র, বাসস্থান সহ জীবনের মানের উন্নয়ন এবং শিল্পায়নের দাবিতে নানা কর্মসূচী গ্রহন করে সমাজের প্রতিটি স্তরে তাদের বিকল্প ধারার রাজনীতির প্রতি জনগনকে আকৃষ্ট করা৷ সিপিএমের ছাত্র-যুবদের শিল্পায়নের দাবিতে পদযাত্রায় বিপুল উৎসাহের সঞ্চার হয়েছে৷প্রবল বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে নবান্ন অভিযানের প্রথম পর্যায়ে বাম মনস্ক ছাত্র-যুবরা হেঁটেছেন অনেকটা পথ৷ আজ আবার ডানকুনি থেকে শুরু হবে পথ চলা৷ইতিমধ্যেই এই কর্মসুচী নিয়ে দলীয় কর্মী,সমর্থক সহ অন্যান্য গনতান্ত্রিক চেতনাসম্পন্ন মানুষের মধ্যে বিপুল উদ্দীপনা তৈরি হয়েছে৷মুলত ছাত্র-যুবদের উদ্যোগে এই কর্মসুচী শুরু হলেও পদযাত্রায় যোগ দিয়েছেন আবালবৃদ্ধ বনিতা৷লং মার্চের আদলেই ছাত্র-যুবদের এই কর্মসূচী ঘিরে ইতিমধ্যে সাজ,সাজ রব কর্মীদের মধ্যে৷
শেষ প্রথম পর্যায়ের পদযাত্রা৷রাতের বিরতিতে বামেদের কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করা ছাত্র-যুবদের রাতের সকালের জলখাবারের তুলে দিতে বাম সমর্থক, শুভানুধ্যায়ী থেকে গণতান্ত্রিক চেতনাসম্পন্ন মানুষদের মধ্যেও উৎসাহ,আবেগ,উদ্দীপনা চোখে পড়ার মত৷আসলে শিল্পায়নই যে পাখির চোখ,বারবার সেই বার্তা দিয়ে চলেছেন বাম নেতৃত্ব৷রাজনীতির ঘুর্ণাবর্তে হারিয়ে যাওয়া সেই সিঙ্গুর থেকেই থেকেই নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছে বামেদের ছাত্র ও যুব সংগঠন৷ বাম ছাত্র- যুবদের পদযাত্রা ঘিরে যেমন উদ্দীপনা যেমন সঞ্চারিত কর্মী সমর্থকদের মধ্যে,তেমনই রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা দেখতে চাইছেন রাজনৈতিক ভাবে কতটা সফল হয় ছাত্র-যুবদের শিল্পায়নের দাবিতে এই পদযাত্রার কর্মসুচী৷ শিল্পায়নের দাবিকে সামনে রেখে এই পদযাত্রার ডাক৷ সিঙ্গুর থেকে এই পদযাত্রায় সামিল হয়েছেন বাম ছাত্র-যুবরা। প্রথম দিনের পদযাত্রায় বিপুল সংখ্যক কর্মী সমর্থকদের অংশগ্রহন,তাদের আবেগ,উৎসাহে,উদ্দীপনায় হাসি ফিরিয়েছে বাম নেতাদের মুখে৷বামেদের অনেক কর্মী সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাত্র-যুবদের এই কর্মসুচীকে ঢালাও প্রশংসা করে বলেছেন পথে এবার নামো সাথী,পথই চেনাবে পথের রাস্তা৷সিঙ্গুর থেকে ডানকুনি পর্যন্ত পদযাত্রার পর আজ আবার ডানকুনি থেকে হাওড়া স্টেশন হয়ে নবান্নে অভিযান৷বিপুল সংখ্যক ছাত্র-যুব এই কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করবেন বলেই অভিমত রাজ্য বাম নেতৃত্বের৷ ন্যানোর স্বপ্ন অনেকদিন আগেই ভেঙে খানখান হয়েছে৷ন্যানোকে ঘিরে কর্মসংস্থানের যে স্বপ্ন বাংলার মানুষ দেখেছিলেন সেই স্বপ্ন কবে রাজনীতির ঘূর্ণাবর্তে ধ্বংস হয়েছে৷কিন্তু বামপন্থীরা আজও বিশ্বাস করেন গঠনমূলক রাজনীতিতে৷মেরুকরনের রাজনীতি নয় তাদের রাজনীতির ভিতটাই সর্বদা অন্যরকম মানুষের খাদ্য,বস্ত্র, বাসস্থান সহ জীবনের মানের উন্নয়ন এবং শিল্পায়নের দাবিতে নানা কর্মসূচী গ্রহন করে সমাজের প্রতিটি স্তরে তাদের বিকল্প ধারার রাজনীতির প্রতি জনগনকে আকৃষ্ট করা, হয়ত সেই কারনেই বাম রাজনীতির অমোভ টানে যারা আসেন তারা হৃদয়ের অন্তরস্থল থেকে বাম রাজনীতিকে ভালবেসেই আসেন৷সেখানে প্রাচুর্য নেই,নেতা,কর্মীদের এক একজনের দু-চারটে স্করপিও গাড়ি নেই,কিন্তু আছে তাদেরও অহঙ্কার করার মত কিছু বৈশিষ্ট,প্রাতিষ্ঠানিক ও নৈতিক মূল্যবোধ সমৃদ্ধ যতেষ্ট শিক্ষা, সহকর্মীর প্রতি ভালবাসা,শ্রদ্ধা,এবং কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একসাথে রাজনীতির ময়দানে লড়াইয়ের অঙ্গীকার৷
আর কমরেডের পাশে কমরেডরা থাকবেন বলেই বাম ছাত্র-যুবর শিল্পায়নের দাবিতে সিঙ্গুর থেকে নবান্ন পদযাত্রায় চোয়ালটা শক্ত ঐ উনিশ-বিশের তরুন তুর্কীদের৷সর্বোপরি বিজেপির মেরুকরণের রাজনীতি এবং তৃণমূলের পাল্টা কর্মসূচীর মাঝেও বামেরা আজও রাজ্য রাজনীতিতে প্রাসঙ্গিক এই বার্তা দিতে এবং মানুষের প্রয়োজনে বিকল্প অর্থনীতির কথা তথা সেই শিল্পের দাবিকে সামনে রেখেই লং মার্চের আদলেই ছাত্র-যুবদের এই বারের পদযাত্রা৷ সেই সিঙ্গুর যেখানে আজও আশাভঙ্গের বেদনায় ঢুকরে কাঁদেন অনেক মানুষ,সেই সিঙ্গুর যেখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ পেতে পারতেন এমন যুবক-যুবতীদের শিল্পের দাবিতে অর্ধেক রাস্তা হেঁটে পার হয়েছেন অসংখ্য তরুন,তুর্কী৷
যারা এই পদযাত্রায় হাঁটবেন তারাই নন,যারা হাঁটবেন না তারাও বিজেপি-তৃণমূলকে উত্তরটা দিতে মানসিক প্রস্তুতি নিচ্ছেন৷রাজ্যের সব গনতান্ত্রিক চেতনাবান মানুষের কাছে তাদের বার্তা মেরুকরনের রাজনীতি নয় বামেদের মুল লক্ষ আগেও যেমন ছিল আজও তেমন আছে৷সমাজের সর্ব স্তরের সব ধর্ম,বর্নের মানুষের জীবনের মানের উন্নয়নই বাম রাজনীতির মূল লক্ষ৷তার জন্য দরকার রাজ্যে শিল্পায়ন৷সেই লক্ষেই বামেরা অতীতে রাজনীতি করেছে,আজও বামেদের একই লক্ষ,ভবিষ্যতেও লক্ষটা একই থাকবে৷
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.