Header Ads

দূষণ দাপটে মুখ পুড়লো তিলোত্তমার।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ সাত বছরের রেকর্ড ভেঙে বেপরোয়া শব্দবাজি ফাটানোয়  শহর কলকাতার মুখ চুনকালি পড়ে গেল। কালিপুজোর মাঝরাতে ভাসমান ধূলিকণা অস্বাভাবিক হারে গেল বেড়ে। সাধারণ অবস্থায় যেখানে পিএম ১০ হয়ে থাকে বাতাসে ভাসমান ধূলিকণার পরিমাণ, সেখানে শব্দবাজির শাসনে তা বেঁড়ে গিয়ে দাঁড়াল ১৬ গুণ। কালীপুজো আর দীপাবলীতে দিল্লীতে বাতাসের মান 'খুব খারাপ' হলে তিলোত্তমায় বাতাসে বিষের মান 'খারাপ'। বাতাসে ভাসমান ধূলিকণার নির্ধারিত মাত্রা হল প্রতি ঘনমিটারে ১০০ মাইক্রোগ্রাম। রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের তথ্য বলছে, চলতি বছর কালীপুজোর রবিবার রাত ১২ টায় রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ভাসমান ছিল প্রতি ঘনমিটারে ১৬৫৭.৭০। যা স্বাভাবিকের থেকে ১৬ গুণ বেশী। শহরের সর্বত্রই একই হাল। দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, কালীপুজোয় প্রতি বছরই বেপরোয়া শব্দবাজির ফাটানোর কারণে বাতাসে দূষণের মাত্রা বেঁড়ে যায়। সঙ্গে আরও দূষণ রয়েছে। সব থেকে জরুরি মানুষের সচেতনতা। মানুষ সচেতন হলেই কালীপুজোয় শব্দবাজি আর দূষণের হাত থেকে শহর রক্ষা পাবে। পর্ষদের ওই আধিকারিক দাবি করেছেন, বাজির দূষণ সরতে সময় লাগে অনেকদিন, এরই মধ্যে ঠাণ্ডা পড়ে যায়। ফলে দূষণের মাত্রা বাড়তে থাকবে। 
Loading...

No comments

Powered by Blogger.