Header Ads

প্রসঙ্গ ডিএ; রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার শুনানি মঙ্গলবার। #Exclusive

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ডিএ-র দাবিতে আদালতে মামলা করা রাজ্য সরকারি কর্মীদের জয় হয়েছে বেশ কিছুদিন আগে। চলতি বছরের গত ২৬শে জুলাই দেশের ক্রেতা মূল্যসূচক বা সিপিআই এর উপর ভিত্তি করে এ রাজ্যের সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা দিতে নির্দেশ দিয়েছিল স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল বকলমে স্যাট। স্যাট রায়ে জানিয়েছিল, কত ডিএ বকেয়া, নির্ধারণ করতে হবে ৩ মাসের মধ্যে আর দিতে হবে ৬ মাসের মধ্যে!
বর্তমান পরিস্থিতি হল স্যাটের দেওয়া সেই তিন মাসের সময়সীমা শেষ হয়েছে ইতিমধ্যেই। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে  রাজ্যসরকার স্যাটের রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালত অর্থাৎ সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার কথা ভাবছে। এই \অবস্থায় কনফেডারেশন অব স্টেট গভমেন্ট এমপ্লয়িজ আদালত অবমাননার মামলা করেছে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে।
স্যাটে মামলা করেছে কনফেডারেশন অব স্টেট গভমেন্ট এমপ্লয়িজ। কনফেডারেশন অব স্টেট গভমেন্ট এমপ্লয়িজের সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন "২৬|০৭|১৯ প্রদেয় ডিএ মামলার মহামান্য ট্রাইবুনালের রায়কে সরকার উপেক্ষিত করার প্রেক্ষিতে আমরা যে "আদালত অবমাননা" মামলা দর্জ করেছি তা,আগামী ০৫|১১|২০১৯ (মঙ্গলবার) দুপুর ২ঃ৩০ মিনিটে, ট্রাইবুনালের মহামান্য বিচারক মাননীয় রঞ্জিত কুমার বাগ এবং মাননীয় সুবেশ কুমার দাস মহাশয়ের (২ নং বেঞ্চ) উঠতে চলেছে।"
অন্যদিকে জানা গেছে, রাজ্য সরকার ট্রাইবুনালে রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছে। সেই প্রশ্নের উত্তরে মলয় বাবু জানান, "গতকাল সরকারও ট্রাইবুনালে একটি রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছেন। হয়ত অনেকেরই প্রশ্ন, তিন মাস অতিক্রান্ত, তথাপি সরকার আজ কি ভাবে রিভিউ পিটিশন দাখিল করল বা করতে পারল। এই প্রশ্ন আমি আমাদের আইনজীবির কাছে রেখেছিলাম? তিনি বললেন পিটিশন দাখিল করার সময় পিটিশনের বিষয়বস্তু কি তা বিচার করা কোনও পিটিশন গ্রহনকারী কর্মীর কাজ নয়।তবে মামলাটি যেদিন উঠবে আমরাই তা বিচারক দ্বয়ের কাছে তার যৌক্তিকতা তুলে ধরব। তার জবাবদিহি সরকারকেই করতে হবে এবং বিচারক দ্বয় সিদ্ধান্ত নেবেন। আশাকরি মামলাটি অবশ্যই খারিজ হয়ে যাবে।"
Loading...

No comments

Powered by Blogger.