Header Ads

হায়দরাবাদের ধর্ষকদের জেলে খাওয়ানো হচ্ছে রাজকীয় খাবার! ক্ষোভে ফেটে পড়ল সারা দেশ।

নজরবন্দি ব্যুরো : গোটা দেশ যখন ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে সোচ্চার, সেই ঘটনার মূল অভিযুক্তদের জেলে খাওয়ানো হয়েছে মটন! শুক্রবার গ্রেফতার হওয়ার আগের রাতে অভিযুক্তদের খেতে দেওয়া হয় রাজকীয় খাবার। সেই ঘটনা জানাজানি হতেই ছিঃ ছিঃ পরে যায় চারিদিকে, ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়াতে। জেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ' জেলের নিয়ম অনুযায়ী ওদের দুপুরে ডাল - ভাত এবং রাতে মটন কারীর সাথে ভাত দেওয়া হয়েছে।' শনিবার হায়দরাবাদের গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনার রিপোর্ট জমা দিল পুলিশ আদালতে। সেই রিপোর্টে পুলিশ জানিয়েছে, চার অভিযুক্ত জোর করে প্রিয়াঙ্কা রেড্ডিকে কেবিনের কাছে নিয়ে যায়। সেখানে তাঁকে নরম পানীয়ের মধ্যে হুইস্কি মিলিয়ে খাওয়ানো হয়। তারপর মাথায় জোরে আঘাত করে গণধর্ষণ করা হয়। পুলিশ আরও জানিয়েছে, তরুণীকে খুন করার পরও ফের গণধর্ষণ করে একে একে গোটা ঘটনাটি ১ ঘণ্টার মধ্যে ঘটিয়েছে ওই চারজন।
কেবিনে তারা সিদ্ধান্ত নেয় একজন গাড়ি আনতে যাবে ও নির্যাতিতার জমা কাপড় আনবে। এরপর তারা সাধনগরের কাছে জাতীয় সড়কে চলে আসে অন্ধকার জায়গা খোঁজার জন্য। সাধনগরের ছাটানপল্লির এক কালর্ভাটের তোলায় দেহটিকে কম্বলে জড়িয়ে পেট্রোল ছড়িয়ে দেয়। তারপর আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় যাতে তরুণীকে কেউ চিহ্নিত করতে না পারে। শনিবার, পুলিশ স্টেশনেই ম্যাজিস্ট্রেট পৌঁছায় ও অভিযুক্তদের বিচার-বিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। এখন প্রশ্ন উঠেছে এই নৃশংস ঘটনা ঘটানোর পর কি করে তাদের জামাই আদর করে খাওয়ানো হচ্ছে! ইতিমধ্যেই দোষীদের চরম শাস্তির কথা বলেছেন সমাজ সেবীর পার্টির সাংসদ, বহু মানুষ এবং সেলিব্রেটিরাও। এছাড়াও দোষীদের পুড়িয়ে মারার দাবী তুলেছেন স্বয়ং মৃতার মা এবং এক অভিযুক্তের মা। প্রশ্ন উঠেছে সেই অভিযুক্তদেরই কিনা এমন জামাই আদর!
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.