Header Ads

তঞ্চকতা করছে সরকার, আদালতের নির্দেশ না মানার অভিযোগ আনল বিজিটিএ

নজরবন্দি ব্যুরো: তঞ্চকরা করছে রাজ্য সরকার। টিজিটি স্কেল আদায় করতে আজ থেকে বিকাশ ভবনের সামনে অনির্দিষ্ট কালের জন্যে ধর্ণা বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করল শিক্ষকদের একটা বড় অংশ।

বিজিটিএ-র করা টিজিটি স্কেলের আদালত অবমাননা মামলাকে হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে চ্যালেঞ্জ করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। উল্লেখ্য ২০১৯ সালের ২২ শে জুলাই মহামান্য হাইকোর্ট গ্র্যাজুয়েট টিচারদের বঞ্চনা দুর করে সর্বভারতীয় বেতনক্রমের সাথে সাযুজ্য রেখে গ্রেড পে ও স্কেল নির্ধারণ করতে বলে রীট অফ ম্যান্ডামাস জারী করে।
কিন্তু সরকারী তরফে বিজিটিএ কে নিয়ে পে কমিশনে একটি হেয়ারিং করা হলেও ঘোষিত পে কমিশনে তার কোন প্রভাব পড়েনি। ফলে আবার আদালত অবমাননা মামলা করে হাই কোর্টের দারস্থ হয় 'বৃহত্তর গ্র্যাজুয়েট টিচারস এসোসিয়েশান বা বিজিটিএ। হাই কোর্টে কয়েকটা হেয়ারিং এ সরকারী পক্ষের তালবাহানার পর গত ২১ শে জানুয়ারী ২০২০ মহামান্য হাইকোর্ট ১১ ই ফেব্রুয়ারী-র মধ্যে গত ২২শে জুলাইয়ের রায় মেনে তার রিপোর্ট জমা দিতে বলে। অন্যথায় ওই ১১ ই ফেব্রুয়ারী বেলা ৪টের মধ্যে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের মেম্বার সেক্রেটারি কে কোর্টে হাজির করানো হবে বলে কোর্ট অন্তর্বতী আদেশ জারি করে।
এই রায়ের প্রেক্ষিতে রাজ্যের গ্র্যাজুয়েট টিচাররা আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেন।
কিন্তু পরে সরকারী তরফে এই অন্তর্বতী আদেশ কে চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আপিল করে রাজ্য সরকার। খবর চাউর হতেই পশ্চিম বঙ্গের বিভিন্ন জেলার গ্র্যাজুয়েট টিচার রা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তাদের রোষ গিয়ে পড়ে রাজ্য সরকারের উপরে। স্কুল ফেরৎ টিচারদের আলোচনার প্রধান বিষয়বস্তু হয়ে ওঠে রাজ্য সরকারের টিজিটি নিয়ে ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার ব্যাপারটি। বিজিটিএ-র যুগ্ম কোষাধ্যক্ষ ও বিজিটিএ দঃ ২৪ পরগনা জেলা নেতৃত্ব স্বপন কুমার মন্ডল জানান,"পশ্চিম বঙ্গের গ্র্যাজুয়েট টিচারদের সাথে তঞ্চকতা করে যাচ্ছে রাজ্য সরকার। হাইকোর্টের রীট অফ ম্যান্ডামাস কে অস্বীকার করে ষষ্ঠ বেতন কমিশনে আরও একবার গ্র্যাজুয়েট টিচারদের বঞ্চিত করা হয়েছে। হাই কোর্ট পুনরায় হস্তক্ষেপ করলে এখন ডিভিশন বেঞ্চে গিয়ে সরকার প্রমাণ করল যে তারা ইচ্ছাকৃতভাবে বঞ্চিত করতে চাইছেন রাজ্যের লক্ষাধিক গ্র্যাজুয়েট টিচারদের।"

এদিন অনশন মঞ্চ থেকে এক প্রতিবাদী শিক্ষক বলেন, "ভাবতে লজ্জা করে এমন রাজ্যে বাস করি যেখানে হাইকোর্টের রায় কে মান্যতা দেওয়ার জন্যে আন্দোলন করতে হয়।"
Loading...

No comments

Theme images by lishenjun. Powered by Blogger.