Header Ads

প্রতিবাদ আরও তীব্র হবে, শিক্ষকদের মুক্তির দাবি জানালেন শিক্ষক শিক্ষাকর্মী শিক্ষানুরাগী ঐক্য মঞ্চের রাজ্য সম্পাদক!

নজরবন্দি ব্যুরো: UUPTWA-এর ডাকে সাড়া দিয়ে রাজ্যের বঞ্চিত প্রাথমিক শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঐক্যবদ্ধ। এর মূল কারণ, বেতন বঞ্চনার এক দশকের শেষে পাওনা ন্যায্য বেতনের যেটুকু তাদের কপালে জুটল সেটিও সঠিক হিসাব মেনে নয়।
মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর দেওয়া কথা অনুযায়ী তাদের বেতন বঞ্চনা তো মিটল না, উপরন্তু বাড়ল। সবথেকে পুরাতন শিক্ষক থেকে সদ্য চাকরিতে যোগ দেওয়া শিক্ষক-শিক্ষিকা প্রত্যেকেই এই বেতন বঞ্চনার শিকার।তাদের মূল দাবী ২৬/০৭/১৯  থেকে গ্রেড পে সমেত বেতন বৃদ্ধির নোটিশের যথাযথ ক্লারিফিকেশন ও অন্যান্য সরকারী দফতরের মতো গ্রেড পে সহ পে ব্যান্ড বৃদ্ধির সময়ে রোপা অনুযায়ী সঠিক সময় হতে নোশানাল এফেক্ট দিতে হবে।
অনেক লড়াই ও আন্দোলনের পরেও তাদের বেতন বঞ্চনার অবসান হয় নি বলে অভিযোগ। আর এর বিরুদ্ধে এই সংগঠন আজ বিকাশ ভবনে পুনরায় অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচীর ডাক দিয়ে ছিলেন।
সেখানে প্রতিটি শিক্ষকের ২৬ শে জুলাই,২০১৯ এর অর্ডার অনুযায়ী ১-১-২০০৬ থেকে নতুন রোপা অনুযায়ী অপশনের তারিখ ১-৮-১৯ তে বেসিক কত হবে তা নির্ধারণ করে দেবেন এবং প্রতিটি শিক্ষকের থেকে ডামি অপশন ফর্ম পূরণ করিয়ে তারা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে জমা করতে যাবেন।
কিন্তু আজ সকালে এই আন্দোলন কর্মসূচি যখন চলছিল তখন এই UUPTWA-এর সম্পাদিকা সহ প্রায় ১৫০০ জন কে গ্রেফতার করে পুলিশ। সম্ভবত এই প্রথম কোনও আন্দোলনের জন্য ১৫০০ জনকে গ্রেফতার করল রাজ্য পুলিশ।

প্রাথমিক শিক্ষকগণ তাঁদের দাবিতে যখন প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করেছিলেন তখন মিছিল শুরুর পূর্বেই যেভাবে কোনও কারণ ছাড়াই শিক্ষক-শিক্ষিকাদের গ্রেফতার করা হল তা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের উপর হস্তক্ষেপ। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। রাজ্য সরকার তাঁদের ন্যায্য দাবিগুলি অতি দ্রুত মেনে নিন এবং আটক করা সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিঃশর্ত মুক্তি দিন। এই দাবি জানালেন শিক্ষক শিক্ষাকর্মী শিক্ষানুরাগী ঐক্য মঞ্চের রাজ্য সম্পাদক কিংকর অধিকারী। 
Loading...

No comments

Theme images by lishenjun. Powered by Blogger.