শরিক বিচ্ছেদ আতঙ্ক! গদি হারানোর ভয়ে জড়সড় মোদী-ব্রিগেড? এবছরেই লোকসভা ভোট!




নজরবন্দি ব্যুরোঃ রাজনৈতিক মহলে কানাঘুষো চলছিল, লোকসভা নির্বাচন কি এগিয়ে আসছে? সেই গুজবে শিলমোহর দিলেন খোদ মোদী জেটলি। মোদী নিজেই তাঁর দলের নেতানেত্রীদের নির্বাচনে লড়ার অস্ত্র শানাতে শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে রয়েছে অরুন জেটলির আগাম ইঙ্গিত।


যদি সময়ের আগে এগিয়ে না আসে তাহলে লোকসভা ভোট হওয়ার কথা ২০১৯ এর এপ্রিল কিংবা মে মাসে। কিন্তু সেই ভোটকে অনেকটা এগিয়ে চলতি বছরেই সেরে ফেলতে পারে মোদী সরকার, এমনই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। সেই মনে হওয়াকে আরও বাড়িয়েছে সদ্য পেশ হওয়া ভোট-মুখী বাজেট। সেই সাথে মোদীর যুদ্ধ-প্রস্তুতি বার্তা। সব মিলিয়ে দুইয়ে দুইয়ে চার করে নিয়েছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

কিন্তু কেন ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনকে এগিয়ে এই বছরই করে ফেলতে চাইছে মোদী সরকার? তার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে রাজনীতির বোদ্ধারা জানিয়েছেন, যত সময় যাচ্ছে ঘরে বাইরে কোনঠাসা হচ্ছে বিজেপি। সদ্যসমাপ্ত গুজরাত ভোট সেই ছবিকে আরও স্পষ্ট করেছে। সেই সাথে গোদের ওপর বিষফোড়ার মতো রয়েছে শরিক বিচ্ছেদের আতঙ্ক। শিবসেনা এবং টিডিপি-র মতো পুরনো শরিকরা ছাড়তে চাইছে বিজেপির হাত।

এই পরিস্থিতিতে গদি টিকিয়ে রাখা নিয়ে যথেষ্ট চাপে মোদী সরকার। এবছরের শেষেই মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় ও রাজস্থানে ভোট রয়েছে। যদিও এগুলি বিজেপি শাসিত রাজ্য তবুও সেই সব রাজ্যেও কৃষক অসন্তোষ থেকে শুরু করে একাধিক সমস্যায় জর্জরিত গেরুয়া শিবির। আরও দেরি করলে সমস্যা বিরাট আকার নিতে পারে। তাই গদি হারানোর আতঙ্কে উদ্বিঘ্ন বিজেপি এখন চাইছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এক ‘দমকা মোদী-হাওয়া’ তুলে নির্বাচন যুদ্ধ বাজিমাত করতে। এরকমই ধারণা রাজনৈতিক শিবিরের।
তবে লোকসভা ভোট এগিয়ে আসছে কিনা জানতে চেয়ে অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলিকে প্রশ্ন করা হলে কিন্তু অন্য সুরে কথা বলেন তিনি। নির্বাচন এগিয়ে আনার সরাসরি কোনো আভাস দেননি জেটলি।


Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*