Header Ads

najarbandi alok somman 2018

দ্বিতীয় দিনেও চলছে "উন্নয়ন"এর বিজয়রথ!!! জেনে নিন এক ঝলকে

নজরবন্দি ব্যুরো: শুক্রবার দ্বিতীয় দিনেও রাজ্যের চলছে পঞ্চায়েত ভোটের গণনা। আর তাতে উন্নয়ন এর সাফল্য অব্যাহত।এখনও পর্যন্ত ৬৩টি গ্রাম পঞ্চায়েত, ৮৩টি পঞ্চায়েত সমিতি এবং ১৮টি জেলা পরিষদ দখল করেছে তৃণমূল। ভোটের এখনও পর্যন্ত প্রকাশিত হওয়া ফল অনুযায়ী সবকটি জেলা পরিষদ দখল করছে তৃণমূল। হাওড়া, মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ  ঘাসফুলের দখলে। তবে মালদা এবং পুরুলিয়ায় কিছুটা লড়াই দেখা গেছে উত্তরবঙ্গও তৃণমূলের দখলে। কোচবিহার, জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ারে একচ্ছত্র আধিপত্য শাসকদলের।উত্তরবঙ্গ থেকে প্রায় মুছে গেছে কংগ্রেস।

পাশাপাশি পায়ের তলায় মাটি হারিয়ে আরো সঙ্কটে বামেরা। কোচবিহারে গ্রাম পঞ্চায়েতের অধিকাংশ আসন তৃণমূলের দখলে।  ১৯৬৬টির মধ্যে ভোট হয়েছে ১২৯৫টি আসনে। তৃণমূলের দখলে ১০৪৮টি, বিজেপি ১১৫টি, সিপিএম মাত্র ৪ টি, ফরওয়ার্ড ব্লক ৮টি,  কংগ্রেস ৭টি এবং নির্দল ১১১টি আসনে জয়ী। দুটি গ্রাম পঞ্চায়েত ত্রিশঙ্কু। কোচবিহার জেলা পরিষদে ৩২টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ৩১টি আসনে জয়ী, দিনহাটার একটি আসনে জয়ী নির্দল প্রার্থী।

জলপাইগুড়ি জেলাতেও ঘাসফুলের দাপট। ৮০টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে তৃণমূলের দখলে ৬৯টি, বিজেপি পেয়েছে ৫টি ও বামেরা একটি গ্রাম পঞ্চায়েত দখল করেছে। তবে অবশ্য ৫টি গ্রাম পঞ্চায়েত ত্রিশঙ্কু। কুমারগ্রামের ১টি আসন দখল করেছে বিজেপি। পঞ্চায়েত সমিতির ১৮৮টি আসনের মধ্যে ১৮১টি আসনে ভোট হয়েছে। এর মধ্যে তৃণমূল ১২৩, বিজেপি ৫৫, বামেরা ২ এবং কংগ্রেস ১টি আসনে জয় পেয়েছে। আলিপুরদুয়ার জেলার ৬৬টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে ৩৬ টি তৃণমূল, ৮টি বিজেপি, বামেদের ১টি এবং কংগ্রেস ১টি আসন দখল করেছে। ত্রিশঙ্কু ১৬টি আসন। তরাই–ডুয়ার্সের চা বাগান বলয়ে খাতা খুলেছে বিজেপি।
Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.