Header Ads

ডিএ নিয়ে উৎকন্ঠার অবসান! তিন বছরের বকেয়া ডিএ এবছরই?

নজরবন্দি ব্যুরোঃ রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ নিয়ে উৎকন্ঠার শেষ নেই। দীর্ঘদিন ধরে মহার্ঘ ভাতা বকেয়া থেকে এখন তা পাহাড় প্রমাণ আকার নিয়েছে। প্রাপ্য ডিএ আদায় করে নিতে আদালতে মামলা করেছে সরকারি কর্মচারীদের একাধিক সংগঠন।


সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে গিয়ে সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর শুনিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চলতি বছর পুজোর আগেই রাজ্যের সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিকে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশও চলতি বছরের মধ্যেই কার্যকর হবে। ফলে আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন সরকারি কর্মীরা। তবে কত পরিমাণ ডিএ মিলবে বা তা কিভাবে হাতে পাবেন তা নিয়ে বেশ চিন্তায় কর্মীমহল।

এই মুহূর্তে রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা ১০০ শতাংশ করে ডিএ পাচ্ছেন। কেন্দ্রের কর্মীরা পান ১২৫ শতাংশ। অর্থাৎ ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশের আগেই রাজ্যের কর্মীদের ডিএ-র হার ১২৫ শতাংশে নিয়ে যেতে হবে। যদিও তাহলেও তিন বছরের ডিএ বকেয়া থেকে যায়।

সরকারি কর্মীদের ডিএ এক শতাংশ বৃদ্ধি করতে চাইলে রাজ্য সরকারের মাসিক খরচ বাড়বে ২৫ কোটি টাকা। সেই হিসেবে বছরে খরচ বৃদ্ধি হবে ৩০০ কোটি টাকা। সুতরাং তিন বছরের বকেয়া ডিএ একসাথে মেটাতে চাইলে খরচ হবে ৩৪ হাজার ৫০০কোটি টাকা। এই বিপুল পরিমাণ খরচ যে রাজ্য সরকারের পক্ষে প্রায় অসম্ভব সেটা মেনে নিচ্ছেন অনেক সরকারি কর্মীই। তবে আদালতে তিন বছরের বকেয়া সমস্ত ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার জন্যেই মামলা করা হয়েছে। সেই মামলায় যদি সরকারি কর্মীরা জয়ী হয় তাহলে পুরো টাকা মিটিয়ে দিতে বাধ্য থাকবে সরকার। এখন দেখার মুখ্যমন্ত্রীর কথা মতো চলতি বছরে ডিএ মেলে কিনা কর্মীদের।

No comments

Theme images by sndr. Powered by Blogger.