Header Ads

najarbandi alok somman 2018

রেলের ওয়াই ফাই কে কাজে লাগিয়ে কুলি আজ হতে চলেছে সরকারি কর্মচারী!!!! #EXCLUSIVE

নজরবন্দি ব্যুরো: "পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই" তা আজ প্রমান করে দেখালো এর্নাকুলাম স্টেশন এর রোগা ছিপছিপে কুলি শ্রীনাথ।হাড় হিম করা পরিশ্রমের মধ্যেও রেলের ওয়াই ফাই পরিষেবা কে কাজে লাগিয়ে স্মার্টফোন এর সাহায্যে পড়াশুনা।

যাত্রীদের ভারী মালপত্র কাঁধে করে বয়ে নিয়ে যাওয়াই তাঁর কাজ ছিল নিয়মিত। কিন্তু চোখে ছিল বড় হওয়ার স্বপ্ন। তার জন্যই পড়াশুনা চালিয়ে গিয়েছেন কাজের সঙ্গে সঙ্গেই। প্রচেষ্টার কোনও কমতি ছিল না সেখানে। কাঁধে মালপত্র নিয়ে যাওয়ার সময় কানে গোঁজা মোবাইলের হেডফোন। তবে তা গান শোনার জন্য নয়। শিক্ষকদের পাঠই তিনি শুনতেন এভাবেই। মনে রাখতেন সরকারি পরীক্ষায় কিভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে কিভাবে প্রশ্নের উত্তরের সম্মুখীন হতে হবে।আর সেই  জন্যই গত পাঁচ বছর ধরে এভাবেই চলেছে প্রতিনিয়ত অনুশীলন। অবশেষে সাফল্য তাঁর কাছে ধরা দিয়েছে। কেরল পাবলিক সার্ভিস কমিশন পরীক্ষায় সফল হয়ে এখন শ্রীনাথ কুলি থেকে সরকারি কর্মী।

 

শ্রীনাথ বলেন, ‘‌আমি স্টেশনের ওয়াইফাই ব্যবহার করে পড়াশুনার বিষয় ডাউনলোড করে নিতাম। আর কাজের সময় তা কানে শুনতাম। আর সেই প্রশ্নোত্তর মনে রাখতাম। তারপর বাড়ি ফিরে রাতে ফের সেইসব পড়াশুনা করতাম।’

 

শ্রীনাথ মুন্নার এলাকার বাসিন্দা। আর সেখান থেকে নিকটবর্তী রেল স্টেশন হল এর্নাকুলাম। পেটের তাগিদে কুলির কাজ বেছে নিয়েছিলেন শ্রীনাথ।কিন্ত লক্ষ্য থেকেও একপাও বিচলিত হয়নি সে। তাই অনলাইনে পড়াশুনার পাশাপাশি সরকারি ফর্মে অনলাইনেই আবেদন করেছিলেন তিনি। তারপর পরীক্ষা এবং চূড়ান্ত সাফল্য। শুধু বাকি রয়েছে ইন্টারভিউ। সেটা পাশ করলেই ভূমি দপ্তরের ফিল্ড অ্যাসিসটেন্ট পদে আসীন হবেন শ্রীনাথ। ‌‌
Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.