Header Ads

ইয়েচুরি-রাহুলের বৈঠক। বিধায়ক নয়,আগে দল! রাজ্যে তৃণমূলে না কংগ্রেসের। #Exclusive

নজরবন্দি ব্যুরো: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন। তাই এখন থেকেই দেশের প্রতিটা রাজনৈতিক দলের কাণ্ডারিরা নিজেদের রাজনৈতিক ঘুঁটি সাজানোর কাজ শুরু করে দিয়েছেন। তবে স্বাধীনতার পর থেকে যে কটি লোকসভা নির্বাচন হয়েছে এবারের নির্বাচন একটু অন্য ধরনের বৈশিষ্ট্যের দাবি রাখতে চলেছে।

এবারের নির্বাচন হতে চলেছে যেন বিজেপি বনাম বিজেপি বিরোধী শক্তির লড়াই। আর তাই নির্বাচনের এক বছর আগে থেকেই সারা দেশ চষে ফেলেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ও সিপিআই(এম) সাধারণ সম্পাদক ইয়েচুরি। লক্ষ্য একটাই, বিজেপি বিরোধী শক্তিকে একত্রিত করা। বিজেপি বিরোধী লড়াইয়ের রণকৌশল নিয়ে এখনও পর্যন্ত ৪ বার বৈঠক করেছেন রাহুল ও ইয়েচুরি। নির্ভরযোগ্য সূত্রে খবর আজ(বৃহস্পতিবার)-ও দুজনে একটি বৈঠক সারেন। আর সেই বৈঠক থেকে পাওয়া খবর অনুসারে, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে সিপিআই(এম) ও কংগ্রেসের মধ্যে জোট হচ্ছে তা একপ্রকার  নিশ্চিত।


তবে এখানে প্রশ্ন উঠতেই পারে, গত দু-দিন ধরে বেশকিছু  মিডিয়া ও সোশাল সাইট গুলোতে প্রকাশিত হয়েছে এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী করতে আপত্তি নেই কংগ্রেস হাই কমাণ্ডের। তাহলে এমন খবর রটছে কেন? বিশিষ্ট অধ্যাপক তথা কংগ্রেস নেতা ওমপ্রকাশ মিশ্র কথা অনুযায়ী। এই রাজ্যে বিধায়ক বাড়ানো নয়, কংগ্রেস দলকে বাঁচাতে নির্দেশ দিয়েছেন রাহুল গান্ধী।

অন্যদিকে যদি এমন হয় নির্বাচনের পরে কোন দল ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে পারলো না, তখন বিজেপি বিরোধী জোট যদি সিদ্ধান্ত নেয় মমতা, মায়াবতী, ইয়েচুরি বা অন্য যে কোনও নেতা বা নেত্রিকে  প্রধানমন্ত্রী করে বিজেপিকে ঠেকাবে, তাতে কংগ্রেস কোন বিরোধীতা করবে না। যাই হোক না কেন এই মুহুর্তের সবথেকে বড় খবর এরাজ্যে তৃণমূলের সাথে নয় কংগ্রেসের জোট হচ্ছে সিপিআইএমের সাথেই।
DESCRIPTION OF IMAGE
Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.