৫% ইনক্রিমেন্ট বন্ধ হতে চলেছে পার্শ্বশিক্ষক-শিক্ষিকাদের! বৃহত্তর আন্দোলনের সলতে পাকানো শুরু।


নজরবন্দি ব্যুরোঃ এই রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ পার্শ্বশিক্ষক ও শিক্ষিকারা। যারা বছরের পর বছর অবহেলিত।জানা গিয়েছে, ২০০৪ সাল থেকে পার্শ্বশিক্ষক ও শিক্ষিকাদের পথ চলা শুরু।

অভিযোগ, বাম আমলের শেষ এক বছর তারা বঞ্চিত ছিলেন। আর এই বঞ্চনার প্রতিকার চেয়ে ২০১১ সালে পরিবর্তনের জোয়ারে গা ভাসিয়ে ছিলেন । গত সাত বছরে তৃণমূলের জামানাতে তাদের এক পয়সা ভাতা বাড়েনি। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায় গত ০৯/০৩/২০১৮ তারিখে নজরুল মঞ্চে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত পার্শ্বশিক্ষকদের ৫৯৫৪ থেকে  ১০০০০ এবং উচ্চপ্রাথমিকের পার্শ্বশিক্ষকদের ৮১৮৬থেকে  ১৩০০০ টাকা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করেছিলেন।
অভিযোগ, রাজ্যের পার্শ্বশিক্ষকরা এখনও পর্যন্ত বর্ধিত ভাতা হাতে পান নি।

 সংসার চালাতে না পেরে, চরম আর্থিক অনটনে আজ পর্যন্ত ৭২ জন পার্শ্বশিক্ষক-শিক্ষিকা মারা গেছেন।  ইতিমধ্যে এই রাজ্যে পার্শ্বশিক্ষকদের স্থায়ী করার টোপ দিয়ে সরকারী দলের পক্ষ থেকে চলতি মাসের ৯ তারিখে  বলা হয়, উচ্চ প্রাথমিকে পার্শ্ব শিক্ষকদের যথাক্রমে ১০০০০,১৩০০০ টাকা সান্মানিক ঘোষণা করে। আর ওই ঘোষণা কার্যকর হবে কিছু মাস পর থেকে। যেটা কেন্দ্রসরকারের থেকে অনেক কম।

 বর্তমানে রাজ্য সরকার বাম আমলের সিদ্ধান্ত, প্রতি তিন বছর অন্তর ৫% ইনক্রিমেন্ট বন্ধ করতে যাচ্ছে। আমরা এর তীব্র বিরোধিতা করছি। প্রয়োজনে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে প্রস্তুত।এমনি কথা জানালেন রাজ্য পার্শ্বশিক্ষক সমন্বয় সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামীম আখতার।
Bengali Movie Air Hostess

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.