Header Ads

"তারা মোট পাঁচজন প্রযোজক, আমাকে সেই পাঁচজনের শয্যাসঙ্গী হতে হবে" বিস্ফোরক অভিনেত্রী।


নজরবন্দি ব্যুরোঃ কিশোর বয়সে প্রথম কানাড়া ছবি করার সময় আমি কাস্টিং কাউচের শিকার (যৌন হয়রানি) হয়েছিলাম এতে এত ভীত আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলাম যে কেঁদে ফেলেছিলাম বিষয়টি আমার নৃত্য

কোরিওগ্রাফারকে জানালে সে বলেছিল, এসব সামলাতে না পারলে সিনেমা ছেড়ে দাও এভাবে নিজের অভিজ্ঞতার কথা বললেন অভিনেত্রী শ্রুতি হরিহরণ।হায়দরাবাদ শহরে 'সিনেমায় যৌনতা' শীর্ষক একটি অনুষ্ঠানে কানাড়া ছবির প্রথম সারির অভিনেত্রী তিনি। এতে সিনেমা শিল্পের সঙ্গে যুক্ত আরো অনেকে নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা জানান। যে কারণে হাতে স্যান্ডেল নিয়েও ঘুরেন অভিনেত্রী!
২৯ বছর বয়সী শ্রুতি বলেন, তখন আমার বয়স ছিল ১৮। তামিল ছবির শীর্ষস্থানীয় একজন প্রযোজক কান্নাড়া ভাষায় তৈরি আমার একটি ছবির স্বত্ব কিনে নেন। তামিল রিমেকে একই চরিত্রে আমাকে রাখার প্রস্তাব করেন। সময় জানতে পারি, তারা মোট পাঁচজন প্রযোজক। আমাকে তাদের সবার সঙ্গে সময় কাটাতে হবে, এমনকি তারা যেভাবে বলবেন, তা- করতে হবে। তার মানে, আমাকে সেই পাঁচজনের শয্যাসঙ্গী হতে হবে

ঘটনার পর কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শ্রুতি হরিহরণ। তিনি বলেন, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, হাতে স্যান্ডেল নিয়ে ঘুরব। যখন ধরনের প্রস্তাব পাব, সোজা তাদের মুখে স্যান্ডেল দিয়ে আঘাত করব। তাতে যদি এই মানুষগুলোর লজ্জা হয়
শ্রুতি হরিহরণ কর্ণাটক রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কারে ২০১৬ সালে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন। চলচ্চিত্র অঙ্গনের সঙ্গে যুক্ত হন কিশোর বয়সে। তখন থেকেই নানা আপত্তিকর প্রস্তাব পাচ্ছেন। অনেক প্রযোজক পরিচালক কাজ পাইয়ে দেওয়ার বিনিময়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করতে চেয়েছেন। তবে শ্রুতি দাবি করেন, সেই শুরু থেকেই এসব পশুর হাত থেকে তিনি নিজেকে রক্ষা করে চলেছেন


DESCRIPTION OF IMAGE
Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.