ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জামের বীজের উপকারিতা

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জামের উপকারের পাশাপাশি জামের বীজও বেশ উপকার করে। বিশেষ করে হজমের সমস্যা সমাধানে জামের বীজের বিকল্প হয় না। তাছাড়া ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জামের বীজ খাওয়ার পরামর্শ দেন।

জামের বীজ অধিকাংশ আয়ুর্বেদিক ডায়াবেটিসের ওষুধ তৈরিতে ব্যবহার হয়। আয়ুর্বেদ এর মতে জাম হল- অ্যাসট্রিনজেন্ট অ্যান্টি-ডিউরেটিক, যা ঘন ঘন মূত্রত্যাগ কমাতে সাহায্য করে, হাইপোগ্লাইসেমিক গুণ আছে যা রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে সাহায্য করে এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পূর্ণ যা ডায়াবেটিসে উপকারী। জাম ফল ও বীজ উভয়েই একই গুণ উপস্থিত আছে। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কিভাবে জামের বীজ ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন
.
প্রথমে জাম পরিষ্কার করে একটি পাত্রে রাখুন। আঙুল দিয়ে ফল থেকে বীজ ছাড়িয়ে নিয়ে অন্য একটি শিশিতে রেখে দিন। বীজগুলো ভালোভাবে ধুয়ে নিন যাতে গায়ে শাঁস না লেগে থাকে। পরিষ্কার কাপড়ে বীজগুলো ছড়িয়ে রোদ্রে তিন থেকে চারদিন শুকোতে দিন।

শুকিয়ে গেলে বাইরের খোসা ছাড়িয়ে ভিতরের সবুজ অংশ বার করুন। সবুজ অংশটি সহজেই আঙুলের চাপে ভাঙতে পারবেন। সবগুলি ভেঙে আরও কিছুদিন রোদ্রে শুকোতে দিন। এবার শুকনো বীজগুলো মিক্সিতে ভালো করে গুঁড়ো করে নিন। ভাল করে গুঁড়ো করার পর চালুনিতে চেলে নিন। তারপর জামের বীজের গুঁড়ো একটি বায়ু-নিরোধক শিশিতে রেখে দিন এবং প্রয়োজন মতো ব্যবহার করুন। এক গ্লাস জলে এক চা-চামচ জামের বীজের গুঁড়ো মিশিয়ে রোজ সকালে খালি পেটে পান করুন।
DESCRIPTION OF IMAGE

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.