ডিএ-র রায় নিয়ে সন্তুষ্ট নয় সরকারি কর্মচারীদের একটা বড় অংশ! কেন?

নজরবন্দি ব্যুরো: বকেয়া ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকার এবং সরকারী কর্মচারীদের মধ্যে সংঘাত অনেক দিনের। আর সেই সংঘাত শেষ পর্যন্ত গড়ায় আদালতে। শুক্রবার এই মামলার রায় দিতে গিয়ে হাইকোর্ট পরিষ্কার জানিয়ে দেয় ডিএ রাজ্য সরকারি কর্মীদের ন্যায্য অধিকার। রাজ্য সরকার তা দিতে বাধ্য। 

তবে এ ব্যাপারে রাজ্য সরকারকে কোনরকম নির্দেশ না দিয়ে মামলাটিকে আবার স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে ফেরত পাঠিয়েছে আদালত। আর এর পরে বকেয়া ডি-এ'র ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই রায় থেকে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে ডি-এ রাজ্য সরকারের দয়ার দান নয়। এই রায়ে খুশি সরকারী কর্মচারীদের একটা বড় অংশ। কিন্তু অপর একটা অংশের মতে,

হাইকোর্ট স্যাট-কে আগামী দুমাসের মধ্যে ডিএ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের নেওয়ার কথা বলেছে। আর প্রশ্ন উঠছে এখানেই, ডিএ মামলা প্রথমে স্যাট-এর কাছে গিয়েছিল। স্যাট রায় দেয় ডি-এ রাজ্য সরকারের দয়ার দান। স্যাটের এই রায়ে সন্তুষ্ট না হয়েই সরকারী কর্মীরা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। টানা ১৭ মাস ধরে মামলা চলার পর শুক্রবার রায় দিয়েছে হাইকোর্ট। এক্ষেত্রে মামলাটিকে আবার স্যাটের কাছে পাঠানো মানেই আরও সময় নষ্ট হবে বলে অনেকে মনে করছেন অনেকে। এছাড়া স্যাটের পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিয়েও যথেষ্ট সন্দেহ আছে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের।
তাই ডি-এ নিয়ে আজকের এই রায়ে অখুশি সরকারি কর্মচারীদের একটা বড় অংশ। 
DESCRIPTION OF IMAGE

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.