এখন আর " ভাগ মুকুল ভাগ" নয়, উল্টে মুকুল বন্দনা বিজেপি নেতাদের গলায়।

নজরবন্দি ব্যুরো: একসময় কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতারা এই রাজ্যে এলে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকেও অনেক বেশি আক্রমণ সানাতেন মুকুল রায়কে লক্ষ্য করেই। এক সময় বিজেপি নেতারা বলতেন " ভাগ মুকুল ভাগ!" এখন সেই অধ্যায় অতীত। এখন মুকুল রায় এই রাজ্যের বিজেপির হেভি -ওয়েট নেতা। তাই এখন মুকুল বন্দনা বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের গলায়।

"মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারানোর জন্যে আমাদের সঙ্গে এসেছেন মুকুল রায়জি।’’ গতকাল মঞ্চ থেকে মুকুল রায়কে উদ্দেশ্যে করে বললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। এর আগে কলকাতা বিমানবন্দরে অমিতকে অভ্যর্থনা জানাতে রাজ্য বিজেপির যে দল পৌঁছেছিল সেখানেও মুকুল বাবু ছিলেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায়। সর্বভারতীয় সভাপতির সঙ্গে সেখানেই তাঁর দেখা হয়েছে।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কিছুটা হলেও ভাল ফল করে অমিত শাহের কাছের মানুষ এখন মুকুল রায়। দিল্লির নেতৃত্বের পছন্দের তালিকায় যে রয়েছেন মুকুল রায়, তা মঞ্চ থেকে তাঁর উদ্দেশ্যে অমিত শাহের মুকুল বন্দনা থেকে তা স্পষ্ট বোঝা যায়। তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে মুকুল রায় ২০১৭ সালের মভেম্বর মাসে বিজেপিতে যোগ দেয়। সঙ্গে নিয়ে এসেছেন একদল বিক্ষুদ্ধ তৃণমূলের নেতা-কর্মীসহ বড়মাপের কিছু নেতাদের। এই কয়েক মাস তিনি কি কাজ করতে পেরেছেন, তা নিয়ে ছবির-পুস্তিকাও প্রকাশ করেছেন চাণক্য। তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর এখনও পর্যন্ত কোনও বিধানসভা বা লোকসভা উপনির্বাচনে জেতেনি বিজেপি, এটা ঠিক।

> কিন্তু প্রতিটি ক্ষেত্রেই বিজেপির ভোট বেড়েছে। সদ্য সমাপ্ত পঞ্চায়েত নির্বাচনেও বড় সাফল্য পেয়েছে বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য। কংগ্রেস-বামফ্রন্টকে সরিয়ে গ্রাম বাংলায় প্রধান বিরোধী হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন বিজেপি। শাসক দলের সন্ত্রাস পঞ্চায়েত নির্বাচনে বড় বাধা না হয়ে দাঁড়ালে, আরও বড় সাফল্য আসতো বলে মনে করেন এই রাজ্যের বিজেপির একাধিক নেতা।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.