Header Ads

দেশের জন্যে ভোটের কাজ করা উচিত শিক্ষকদের?

নজরবন্দি ব্যুরোঃ DO আর BLO DUTY করতে না চাওয়া রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকরা একটি মামলা করেছেন কলকাতা হাইকোর্টে। গতকাল আদালতে সেই মামলার শুনানি হয়। আগামী বুধবার তাঁর রায় শোনাবেন বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী। দু পক্ষের কথা শুনে বিচারপতি নির্দেশ দেন আগামী বুধবার নির্বাচন কমিশন কে জানাতে হবে এই কাজে কতজন শিক্ষক নিজুক্ত হয়েছেন। বিচারপতি নির্বাচন কমিশন কে বলেন "আপনারা  Excellence চান না Election?" আদালত চত্বরে উপস্থিত বিচারপ্রার্থী শিক্ষকদের আশা তাঁরা সুবিচার পাবেন। আগামী বুধবার দুপুর একটায় রায় ঘোষণা হওয়ার কথা।

গত ২১শে অগাস্ট প্রাইমারি স্কুল শিক্ষক সুতন্ত্র হালদার বিডিও এবং মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের তরফে একটি চিঠি পান যাতে নির্দেশ ছিল ২০১৯ লোকসভা ভোট সামনেই। ভোটার তালিকা সহ ফাইনাল লিস্ট প্রকাশ করতে হবে ২০১৯ এর ৪ জানুয়ারির মধ্যেই। এরপরেই ওই শিক্ষক ইলেক্টোরাল রোল রিভিশনের কাজের বিরোধিতা করে আদালতে যান। তাঁর যুক্তি ছিল, ২ মাসের জন্য ওই কাজ করতে গেলে স্কুলের পঠনপাঠন বিঘ্নিত হবে। সেই মামলার শুনানি হয়। শুনানির সময় বিডিও-র পক্ষের আইনজীবী বলেন, যে সময়টা ওই কাজ হবে সেই সময়ে দুমাসের মধ্যে প্রায় ৩১ দিন স্কুল ছুটি থাকবে। তাই পঠনপাঠনের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই।


সূত্রের খবর তখন বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তীকে সরকার পক্ষের আইনজীবি বলেন, শিক্ষকদের কিছু কাজ দেশের জন্য করা উচিৎ। ভোটের এই কাজটিও সেরকমই একটি কাজ। তখন বিচারপতি বলেন দুটি কাজের মধ্যেই ভারসাম্য এনে মধ্যবর্তী কিছু ভাবতে হবে! বিচারপতি নির্বাচন কমিশন কে বলেন "আপনারা  Excellence চান না Election?" পাশাপাশি ইলেক্টোরাল রোল রিভিশন চলাকালীন ২ মাসে মোট কতদিন ছুটি রয়েছে তার তালিকা আদালতে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশনের আইনজীবীকে।

বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তী ডিও বিএলও মামলার রায় দেবেন আগামী বুধবার। কি হবে জানা যাবে আগামী বুধবার দুপুর ১ টায়! ততক্ষন অপেক্ষা!

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.