ডিএ দিতে টাকা নেই, আর পুজো কমিটিকে ২৮ কোটি! ক্ষোভ এবার শাসক সংগঠনেই।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মহার্ঘ ভাতা চাইলে শুনতে হয় ঘেউ ঘেউ করবেন না, টাকা নেই, রাজ্যের দয়ার দান! ১৭ মাস মামলা চলার পর হাইকোর্ট বলে হকের দাবি! আজও মামলার শুনানি হয়েছে স্যাটে সেই অবস্থায় গাদা গুচ্ছের মহার্ঘ্যভাতা বাকি রেখে মুখ্যমন্ত্রী জনগনের ট্যাক্সের টাকা বরাদ্দ করেছেন পুজো কমিটি গুলোর জন্যে! টাকার পরিমান ২৮ কোটি!

এতেই মৌচাকে ঢিল পড়েছে! মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পর বেকায়দায় খোদ শাসক দলের সরকারি কর্মচারী সংগঠন। বিরোধীদের চাপ তো ছিলই তার উপর এখন সংগঠনের নেতারা পর্যন্ত সরাসরি প্রশ্নের সম্মুখিন হচ্ছেন সংগঠনেরই সদস্যদের। খবরে প্রকাশ তৃণমূলের কর্মচারী ফেডারেশনের এক নেতা বলেছেন "এই ক্ষোভ অস্বাভাবিক নয়, দলীয় নেতৃত্ব কে জানাব"।
অন্যদিকে রাজ্য কোঅর্ডিনেশন কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিজয়শঙ্কর সিংহ বলেন, ‘‘আমরা এই বরাদ্দের বিরোধিতা করছি। সরকারি কর্মচারীদের ৫৬ সতাংশ মহার্ঘভাতা বকেয়া। এই অবস্থায় সরকারের এই ঘোষণায় রাজ্যের কোন উন্নতি হবে, তার জবাব সরকারকে দিতে হবে।’’উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে হাইকোর্ট 'ডিএ সরকারি কর্মচারীদের অধিকার' রায় দেওয়ার পর বিজয়শঙ্কর সিংহ বলেছিলেন "সকল রাজ্য সরকারী কর্মীই জানেন, ডিএ পাওয়া তাঁদের অধিকার। আদালতের রায়কে আমরা স্বাগত জানাচ্ছি। কিন্তু এই অধিকার রক্ষার জন্য আন্দোলনই শেষ রাস্তা।"

এমনকি কো-অর্ডিনেশন কমিটি জানিয়ে দিয়েছিল। ২৬ নভেম্বর পে- কমিশন গঠন করা সরকার নির্ধারিত শেষ দিন। যদি ওই দিনে পে-কমিশন গঠন না হয় তাহলে নবান্ন অবরুদ্ধ করবেন রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা।
Bengali Movie Air Hostess

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.