এবার মুসলমানদের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়ার দাবি! বিতর্কে বিশ্বহিন্দু পরিষদ

নজরবন্দি ব্যুরো: দ্বিজাতি তত্ত্বের উপর ভিত্তিতে এই দেশ ভাগ হয়েছে। দেশ ভাগের পরে খণ্ডিত হিন্দুস্তানে মুসলিমদের থেকে যেতে দেওয়া হয়েছিল, ওরা তেমনই থাকুক। শিক্ষা, জীবিকা, ধর্মাচরণের সুযোগও পাক কিন্তু বাদ যাক ভোটাধিকার। এমনই সব দাবি করা হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মুখপত্র ‘বিশ্ব হিন্দু বার্তায়।’

বাংলা বিশ্ব হিন্দু বার্তার( ৪৪তম বর্ষ, কার্তিক ১৪২৫, তৃতীয় সংখ্যা) ১৯-২২ নং পৃষ্ঠায় নৃসিংহ প্রসাদ দে-র লেখা ‘হিন্দু সমাজ ভাবনা’র একটি অংশে মুসলিমদের ভোটাধিকার দেবার জন্য সওয়াল করা হয়েছে।
‘হিন্দু সমাজ ভাবনা' শীর্ষক প্রবন্ধটিতে লেখক লিখেছেন, ‘‘হিন্দুস্থান হিন্দুদের তাই অন্যদের ভোটাধিকার এখনই বন্ধ করা উচিৎ। ১৯৪৭ সাল থেকেই এটি করা উচিৎ ছিল রাষ্ট্রের। রাষ্ট্র পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণের সকল সুযোগ শুধুমাত্র হিন্দুদেরই থাকা উচিৎ। মুসলমানদের প্রতি কোনরকম বিরোধ নেই । তারা আমাদেরই পূর্বপুরুষের জ্ঞাতি ও আত্মীয়। তারা একমাত্র হিন্দুত্বে আসলেই তবে ফিরে পাক ভোট দেবার অধিকার।’’

যদিও এই মতের সঙ্গে একেবারেই এক মত হতে হননি বিশ্ব হিন্দু পরিষদের বাংলা সহ পূর্বাঞ্চলের প্রধান শচীন্দ্রনাথ সিংহ। তিনি এই বিষয়ে বলেন, ‘‘দেখুন এটি যেই লিখে থাকুক অবশ্যই তা ভুল। মুসলিমরা দেশের একটা অংশ। দেশের সংবিধান ওদের ভোট দেবার অধিকার মেনে নিয়েছে। অবশ্যই তা সুরক্ষিত থাক। যারা অনুপ্রবেশকারী তাদের ভোটাধিকার রোধ করা করা হোক। যারা দেশ ভাগের আগের থেকে এদেশে আছেন তাদের নয়।’’

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...
Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.