Header Ads

DESCRIPTION OF IMAGE

লালপতাকার সিঙ্গুর থেকে পদযাত্রায় রাজ্যবাসীর হৃদয় আবার জিততে শুরু করল বামেরা

অরুনাভ সেনঃ স্মৃতি থেকে এখনও অনেক মানুষের হারিয়ে যায়নি মহারাষ্ট্রের লং মার্চ৷চারিদিকে তাকিয়ে দেখলে শুধু লাল পতাকা৷কে বা কারা ছিলেন না সেই মিছিলে৷আবালবৃদ্ধ বনিতা হেঁটে চলেছেন তাদের দাবি আদায়ের লক্ষে৷কোনও সন্দেহ নেই সেই স্মৃতি যেন ফিরিয়ে দিল সিঙ্গুর৷চারিদিকে কেবলই লাল পতাকা৷মানুষ সুষ্ঠুভাবে কাজের দাবিতে,শিল্পের দাবিতে সুশৃঙ্খল ভাবে হাঁটছেন৷পথচলতি মানুষ থেকে বিভিন্ন গাড়ির আরোহী থেকে ড্রাইভার সামান্য থমকে সিঙ্গুর থেকে রাজভবন ৫২কিমি রাস্তায় লাল পতাকার শেষ দেখতে না পাওয়া মিছিল নিজেদের মোবাইল বন্দি করছেন৷একটা পদযাত্রা, একটা মিছিলকে ঘিরে মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত আবেগ শেষ কবে বাংলার মানুষ দেখেছেন তারাই মনে করতে পারছেন না৷
কোনও সন্দেহ নেই প্রথমদিনেই কৃষকসভা ও ক্ষেতমজুর সংগঠনের শিল্প ও কাজের দাবিতে সিঙ্গুর থেকে রাজভবন সুদীর্ঘ ৫২কিমি পদযাত্রার প্রথম অংশ মেগাহিট৷প্রথমশ্রেনীর সংবাদপত্রগুলিকে খবর করতে হচ্ছে বামেদের মিছিলের শেষ দেখা যায়নি৷ইলেকট্রনিক্ মিডিয়াগুলোকে পর্যন্ত ছবি দেখাতে হচ্ছে বামেদের এই দীর্ঘ পদযাত্রার৷যারা বলতেন সিপিএমকে দূরবীন দিয়ে দেখতে হয় তারাও বুঝলেন সিপিএমের যেকোনও কর্মসুচীতে মানুষ কত স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে অংশ নেন৷মানুষ দেখলেন পদযাত্রায় অংশ নেওয়া মানুষদের রাতের খাবার ও সকালের টিফিন দিতে পার্টি দরদী মানুষদের কত আন্তরিকতা,কত আতিথেয়তা৷আসলে বাম রাজনীতির মজাই বোধহয় এখানে৷
যেখানে অসাম্য নেই,প্রশাসনিক ক্ষমতার জন্য লালায়িত হওয়া নেই,ক্ষমতার আবর্তে না থেকেও মানুষের জীবনের মান উন্নয়নের রাজনীতে নিজেকে সঁপে দেওয়াই এই রাজনীতির অমোঘ ইউএসপি৷সিপিএম নেতৃত্বের দাবি পদযাত্রার সূচনায় প্রত্যাশার থেকে অনেক বেশী মানুষ যোগ দিয়েছেন৷ দুটি গনসংগঠনের ডাকে পদযাত্রায় যেভাবে মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে যোগ দিয়েছেন তাতে বাম নেতাদের মুখের হাসি আরও চওড়া হয়েছে৷ বাম নেতৃত্বের বক্তব্য সরকার সিঙ্গুরে শিল্পকে শ্মশানে পাঠিয়েছে।

সেই শ্মশান থেকে শিল্পের পুনরুজ্জীবনের দাবিতেই আমাদের এই অভিযান। শুধু রাজ্য নয়, কেন্দ্র সরকারও চাষিদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে৷
মহারাষ্ট্রের ‘কিসান লং মার্চ’-এর আদলে এই কর্মসূচিতে শুধু হুগলি নয়, অন্যান্য জেলা থেকেও বাম কর্মী-সমর্থকেরা যোগ দিয়েছেন৷বাম নেতা,কর্মী সবার দাবি শিল্প আর কাজের দাবিতে বামেদের এই পদযাত্রা রাজ্যের মানুষের টনক নড়িয়ে দিয়েছে৷তাদের আরও বক্তব্য মেরুকরনের রাজনীতি নয় বরং বামেরা লড়বে কাজের দাবিতে,শিল্পের দাবিতে৷সমাজের সর্ব স্তরের মানুষের জীবনের মানের উন্নততর করতে৷উল্টোদিকে বাম কর্মী,সমর্থক থেকে শুভাধুন্যায়ীরা বলছেন সিঙ্গুর থেকে রাজভবন ৫২কিমি পদযাত্রা রাজ্য রাজনীতিতে একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে৷কাজ আর শিল্পের দাবিতে নিজের সব কাজ ফেলে বাম কর্মী,সমর্থকরা লাল পতাকা নিয়ে নিজের সব আবেগ দিয়ে হেঁটে চলেছেন এই অনুভূতি কোনও বিশেষন প্রয়োগ করে বোঝানো সম্ভব নয়৷ পার্টির প্রতি অকৃত্রিম ভালবাসা না থাকলে এভাবে ৫২ কিমি শুধু হেঁটে পেরিয়ে যাওয়া যায় না৷সবমিলিয়ে আবার বলা যায় রাজ্যের মানুষের হৃদয় আবার জিততে শুরু করেছে সিপিআইএম৷
Theme images by sndr. Powered by Blogger.