Header Ads

DESCRIPTION OF IMAGE

মানহানির মামলায় ৩ লক্ষ্য অস্ট্রেলিয় ডলারের জয় পেলেন গেইল।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মানহানির মামলায় অস্ট্রেলিয় এক সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে ৩ লক্ষ্য অস্ট্রেলিয় ডলারের জয় পেলেন ক্রিশ গেইল। এই জয়ের ফলে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা মহিলা ম্য়াসাজ-থেরাপিস্টকে যৌন হেনস্থা করার কলঙ্কও ঘুঁচল।
২০১৬ সালে। 'সিডনি মর্নিং হেরাল্ড' ও 'দ্য এজ' পত্রিকার প্রকাশক সংস্থা ফেয়ার ফ্য়াক্স মিডিয়া, একের পর এক নিবন্ধে গেইলের বিরুদ্ধে এক অজি মহিলা ম্য়াসাজ-থেরাপিস্টকে যৌন হেনস্থা করার গুরুতর অভিযোগ এনেছিল। তারা অভিযোগ করে, ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ চলাকালীন সিডনিতে ড্রেসিংরুমের মধ্যে গেইল ওই মহিলাকে তাঁর পুরুষাঙ্গ দেখান ও তারপর তাঁকে কুপ্রস্তাব দেন।
 কিন্তু ফেয়ারফ্যাক্সের যাবতীয় অভিযোগ গেইল বরাবরই দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করেছিলেন। তাঁর পাল্টা অভিযোগ ছিল, যে সাংবাদিক ওই খবরকরেছএন, তাঁর উদ্দেশ্য গেইলকে 'ধ্বংস করা'। তাঁর সতীর্থ ডোয়েন স্মিথ ঘটনার সময়ে ড্রেসিংরুমে উপস্থিত ছিলেন।

 তিনিও এগিয়ে এসে জানান, এরকম কোনও ঘটনা ঘটেনি। এরপরই ওই ফেয়ারফ্যাক্সের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছিলেন 'ওয়েস্টইন্ডিজের দৈত্য'। সোমবার, এই মামলার নিষ্পত্তি করে ক্ষতিপূরণের পরিমাণ জানান নিউ সাউথ ওয়েলস সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি লুসি ম্যাকালাম।
 তিনি জানান, 'এই অভিযোগে মিস্টার গেইলের ভাবমূর্তির গুরুতর ক্ষতি হয়েছে।' তিনি আরও জানান, এই অভিযোগে গেইলের 'অনুভূতি আহত হয়েছিল'। তার সপক্ষে গেইল যে প্রমাণ দিয়েছেন, তাই তাঁকে এই বিপুল ক্ষতিপূরণের সাজা ঘোষণায় 'বাধ্য করেছে'।

No comments

Theme images by sndr. Powered by Blogger.