বেনজির গুণ্ডামি তৃণমূলের! তোলাবাজি রুখতে গিয়ে বেধড়ক মার খেলেন সাংবাদিকরা! #Exclusive

নজরবন্দি,মেদিনীপুরঃ মুখ্যমন্ত্রীর সভার আগেই বেনজির গুন্ডামি তৃণমূলের, বেধড়ক মার দুই চিত্র সাংবাদিককে! ঘটনাস্থল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সদর শহর লাগোয়া এক পেট্রোল পাম্পে।
সাত সকালেই সমাবেশে যাওয়ার পথে ওই পাম্পে কেশপুরের তৃণমূল সমর্থক বোঝাই বাস ওই পাম্পে টাকা না দিয়ে তেল ভরতে গেলে পাম্প কর্মীদের সাথে ওই সমর্থকদের বচসা ও ধ্বস্তাধস্তি শুরু হলে সে খবর যায় সংবাদ মাধ্যমে। কয়েকজন সাংবাদিক সেই গন্ডগোলের ছবি করতেগেলে তাদের ধরে বেধড়ক মারা হয়।

জানা গেছে কেশপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শুভ্রা দে সেনগুপ্ত নিজে দাঁড়িয়ে থেকে এই মারধরের পরিচালনা করেন। ওই সাংবাদিকদের তোলা সমস্ত ছবি ভিডিও ডিলিট করান এবং মোবাইল ও ক্যমেরা সহ সমস্ত টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেন। তাদের মোবাইল সহ সমস্ত কিছু ছাড়িয়ে নেন নেতৃত্বে থাকা কেশপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শুভ্রা সেনগুপ্ত মোবাইল ও ক্যামেরাগুলি নিয়ে বেরিয়ে যান শুভ্রা সেনগুপ্ত ৷
 আশঙ্কাজনক অবস্থায় পড়ে থাকা সাংবাদিকদের উদ্ধার করে ভর্তি করা মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে যায় কতোয়ালী থানার পুলিশ ৷ ততক্ষনে আক্রমনকারীরা পালায় ৷ পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানান “ বিষয়টি জেনেছি, শীঘ্রই গ্রেফতার করা হবে আক্রমনকারীদের ৷”
পশ্চিম মেদিনীপুর প্রেস ক্লাবের সম্পাদক সুজয় খাঁড়া জানান “আমরা লিখিত অভিযোগ দায়ের করছি ৷ পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতী দিয়েছে৷ আমরা বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রীকেও জানাচ্ছি৷” সোমবার বেলা এগারোটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে মেদিনীপুর শহর সংলগ্ন ধর্মা এলাকার একটি পেট্রল পাম্পে।
DESCRIPTION OF IMAGE

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.