Header Ads

জেলাশাসক নিখিল নির্মল বিতর্কে নতুন মোড়, চাকরির প্রস্তাব অভিযুক্তকে!

নজরবন্দি ব্যুরো: এবার আলিপুর দুয়ারের জেলাশাসক নিখিল নির্মলকে সরিয়ে দিতে উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। অনুমতি চেয়ে দিল্লিতে চিঠি পাঠাল নবান্ন। সামনেই নির্বাচন। এখন সব জেলাশাসক নির্বাচন কমিশনের অধীনে। তাই রাজ্য সরকার নিজের ইচ্ছাতে কোন জেলাশাসকে সরিয়ে দিতে পারেন না। তাই দিল্লির অনুমতি পেলেই তবে এই কাজ সম্ভব।
আর সেই কারণে দিল্লিতে চিঠি দিচ্ছে নবান্ন।
প্রসঙ্গত, সোশ্যাল মিডিয়ায় জেলাশাসকের স্ত্রী বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্য করার অভিযোগে এক যুবককে থানায় নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারেন জেলাশাসক ও তাঁর স্ত্রী। এর পরে ওই অভিযুক্তকে মেরে ফেলার হুমকি দেন জেলাশাসক নিখিল-বাবু। আর সেই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতেই বিতর্ক শুরু হয় গোটা রাজ্য জুড়ে। ছুটিতে পাঠান হয় ওই জেলাশাসককে।
একজন আইনের রক্ষক হয়ে কি ভাবে জেলাশাসক আইন নিজের হাতে তুলে নিলেন, সে বিষয়ে বিস্ময় প্রকাশ করে আদালত। এমনকি বিচারক পূর্বা কুণ্ডু ধৃতের জামিন মঞ্জুর  করার পর পুরো ঘটনায় রুষ্ট হন।
এক সূত্র থেকে পাওয়া খবর অনুসারে, ওই অভিযুক্তের বাড়ি থেকে ওই জেলাশাসক ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে অভিযোগ নিতে রাজি হয় নি পুলিশ। উল্টে তাদেরকে চাকরির বিনিময়ে বিষয়টি মিটিয়ে নেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে। এমনি অভিযোগ। বিনোদের জামিন মঞ্জুর হওয়ার পর থেকেই রীতিমতো তাঁদের সঙ্গে বিষয়টি মিটিয়ে নিতে চাইছে পুলিশের একটা বড় অংশ।
বলা হচ্ছে, জেলাশাসকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের না করতে। তবে নিখিল নির্মল ও তাঁর স্ত্রী নন্দিনী কৃষ্ণাণের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছেন ফালাকাটা থানার আইসি। তবে কোন কিছুর প্রলোভনে ওই জেলাশাসক ও তাঁর স্ত্রীকে ছাড়তে নারাজ অভিযুক্তের বাড়ির লোকজন।

No comments

Theme images by sndr. Powered by Blogger.