বিশ্বভারতীতে জাল মার্কশিট কাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত প্রাক্তন উপাচার্য দিলীপ সিংহ।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিশ্বভারতীতে জাল মার্কশিট কাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত প্রাক্তন উপাচার্য দিলীপ সিংহ। একইসঙ্গে প্রাক্তন রেজিস্ট্রার দিলীপ মুখোপাধ্যায় এবং প্রাক্তন অধ্যাপিকা মুক্তি দেব।
নিয়োগের সময় থেকেই জালিয়াতি করেছিলেন মুক্তি দেব। তিনি জানিয়েছিলেন, যাদবপুর এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্য়ালয় থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর উত্তীর্ণ। অধ্যাপিকা হিসেবে নিয়োগের পর বিশ্বভারতীতেই পিএইচডি করার জন্য আবেদন করেন মুক্তি দেব। সেই সময় শিক্ষাগত যোগ্যতার আসল নথি তলব করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। মুক্তি দেব সেই সময় যাদবপুর থানায় দায়ের করা একটি জিডির কপি পেশ করেন। যাতে অভিযোগ করা হয়েছে, বাড়ি থেকে সব নথি চুরি হয়ে গিয়েছে।

সেই সময় সন্দেহ বাড়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের।এর পর যাদবপুরের পাশাপাশি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে তথ্য তলব করা হয়। যাদবপুরের তরফে জানানো হয়, যেই সময়ের কথা বলা হচ্ছে, সেই সময় মুক্তি দেব নামে কোনও ছাত্রী তাদের ওখানে ছিলেন না। অন্যদিকে, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় জানায় পার্ট ওয়ানে মুক্তি দেবের নাম পাওয়া গেলেও, অন্য কোনও রেকর্ড পাওয়া যায়নি। এর পর নানান তরফে তদন্ত করার পরে নিশ্চিত হয়ে এই মর্মে ২০০৪ সালে বিশ্বভারতীর তৎকালীন কর্মসচিব সুনীল সরকার একটি অভিযোগ দায়ের করেন বোলপুর থানায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু হয়। পরে তদন্তের দায়িত্বভার গ্রহণ করে সিআইডি ।  
মামলার সিআইডি-র স্পেশাল আইনজীবী নবকুমার ঘোষ বলেন, বিচারক প্রাক্তন উপাচার্য ও কর্মসচিব এবং অধ্যাপিকা মুক্তি দেবকে ষড়যন্ত্র ও জালিয়াতির ৪৬৬, ৪৬৭, ৪৬৯, ৪৭১, ৪৭৪ নং আইপিসি ধারায় অভিযুক্ত করেছেন। ১৫ বছর ধরে মামলা চলার পর বুধবার বোলপুর আদালতের অ্যাডিশনাল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অভিযুক্তদের দোষী সাব্যস্ত করেন। অভিযুক্ত তিনজনই আপাতত পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।
DESCRIPTION OF IMAGE
Bengali Movie Air Hostess

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.