রেকর্ড গড়ল রাজ্য, হ্যাট্রিক নয় ফোরট্রিক! আবার প্রশ্নপত্র ফাঁস মাধ্যমিকে, আজ ভূগোল!! #Exclusive

নজরবন্দি ব্যুরোঃ আজ মাধ্যমিকের ভূগোল বিষয়ে পরীক্ষা গ্রহন চলছে। এর আগের তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা যথাক্রমে বাংলা, ইংরাজি এবং ইতিহাসে প্রশ্ন পত্র ফাঁসের মতো ঘটনা ঘটেছে। ভূগোলের প্রশ্নও ফাঁস হয়ে গেল এদিন! সূত্রের খবর ১২ঃ০৩ মিনিট নাগাত প্রশ্নপত্র ঘুরতে শুরু করে মোবাইলে মোবাইলে।
নজরবন্দির দফতরেও এসে পৌঁছেছে সেই 'লিক' হওয়া প্রশ্নপত্র। এই সরকারের আমলে বহুবার প্রশ্ন ফাঁস হবার অভিযোগ উঠেছে কিন্তু লাগাতার চারদিন অর্থাৎ মাধ্যমিক স্ট্যান্ডার্ডের পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের মত ঘটনা পশ্চিমবঙ্গ কেন ভারতের ইতিহাসেই সম্ভবত কোনদিন ঘটেনি।
একে বলা চলে হ্যাট্রিক নয় ফোরট্রিক।
 পরীক্ষা শুরুর আগে বেশ কিছু সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল মধ্য শিক্ষা পর্ষদ, কিন্তু তাতে যে সেরকম কাজ হয়নি তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা।কি কি ছিল সেই নিয়ম? পরীক্ষার্থীদের জন্যে নিয়মঃ কেউ মোবাইল নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢুকতে পারবে না। মোবাইল ধরা পড়লে পরীক্ষা দিতে দেওয়া হবে না। খাতা RA করা হবে এবং পরীক্ষার পর ধরা পড়লে উত্তরপত্র RA করা হবে।
শিক্ষক, অশিক্ষক কর্মচারী-দের জন্যে নিয়মঃ মোবাইল সুইচ অফ করে প্রধান শিক্ষকের ঘরের আলমারিতে রাখতে হবে। যার চাবি থাকবে প্রধান শিক্ষকদের কাছে।
মোবাইল ব্যবহার করতে পারছেন শুধুমাত্র সেন্টার সেক্রেটারি, অফিস ইনচার্জ, ভেনু ইনচার্জ, ভেনু সুপারভাইজার, ভেনু অ্যাডিশনাল সুপারভাইজার! এত সবের পরেও ঠেকানো গেলনা প্রশ্নপত্র ফাঁস। তবে গাফিলতি কার? এতো সর্ষের মধ্যেই ভূত!! সোশ্যাল মিডিয়ায় শিক্ষা দফতরের উদ্দেশ্যে করা হয়েছে কটাক্ষ। নিশানা থেকে বাদ জাচ্ছেন না খোদ শিক্ষামন্ত্রীও।
প্রশ্ন উঠছে কি ভাবে পরীক্ষা গ্রহন চলছে? কেমন ভাবেই বা দেওয়া হচ্ছে গার্ড? তবে কি ইচ্ছাকৃত ভাবে সর্বসম্মতিতেই ঘটছে প্রশ্ন ফাঁসের মত ঘটনা?
দেখুন ভূগোলের সেই ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র।




নজরবন্দির অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে একটি জনমত সমীক্ষা রাখা হয়েছে।
পাঠকদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন রাখা হয়েছে
প্রশ্ন ফাঁসের হ্যাট্রিক মাধ্যমিকে! দায় স্বীকার করে ইস্তফা দেওয়া উচিত শিক্ষামন্ত্রীর?
উত্তর দিতে পারেন 'না' অথবা 'হ্যাঁ' অপশনে। উল্লেখ্য বিষয়, কেউ চাইলেও একবারের বেশি ভোট দিতে পারবেন না। ভোট গ্রহন শুরু হয়েছে গতকাল থেকে। এখন পর্যন্ত ১৯০০ টি ভোট পড়েছে যার মধ্যে ১০০ জন(৫% পাঠক) ভোট দিয়েছেন 'না' অর্থাৎ শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ চান না অপশনে এবং ১৮০০ জন(৯৫% পাঠক) ভোট দিয়েছেন হ্যাঁ  অর্থাৎ পদত্যাগ চান অপশনে!
ভোট দিতে পারেন আপনিও। ভোটিং অপশন খোলা থাকছে আগামী ৬ দিন। ভোট দিন আপনার পছন্দের অপশনে।
ভোট দেওয়ার জন্যে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
প্রশ্ন ফাঁসের হ্যাট্রিক মাধ্যমিকে! দায় স্বীকার করে ইস্তফা দেওয়া উচিত শিক্ষামন্ত্রীর?

Bengali Movie Air Hostess

DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

1 comment:

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.