সর্ষের মধ্যেই ভূত? বাংলার পর এবার ইংরেজি প্রশ্নপত্র ছড়িয়ে গেল সোস্যাল মিডিয়ায়।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বজ্র আটুনি ফোস্কা গেরো! পরীক্ষার দ্বিতীয় দিনেও ফাঁস মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র! সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গেছে মাধ্যমিক পরীক্ষার দ্বিতীয় ভাষা অর্থাৎ ইংরেজির প্রশ্নপত্র।
পরীক্ষা শুরুর পর ১২ঃ৪৫ নাগাত প্রশ্নপত্র ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু এত নিরাপত্তার মধ্যেও কার গাফিলতিতে ফাঁস হল প্রশ্নপত্র! উল্লেখ্য, প্রশ্ন ফাঁস আটকাতে এই বছর কড়া ব্যাবস্থা নিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পরীক্ষা শুরুর কয়েকদিন আগেই ঘোষণা করা হয় কোন পরিক্ষার্থী মোবাইল ফোন নিয়ে পরীক্ষা সেন্টারেই ঢুকতে পারবে না। ধরা পড়লে পরীক্ষা দিতে দেওয়া হবে না তাঁকে।

পাশাপাশি শিক্ষক-শিক্ষাকর্মীদের জন্যেও নিয়ম ছিল প্রায় একই। শিক্ষক শিক্ষাকর্মীদের মোবাইল বন্ধ করে জমা রাখার কথা হেডমাস্টারের অফিসের তালাবন্ধ আলমারিতে। যার চাবি থাকবে স্বয়ং হেডমাস্টারের পকেটে। মোবাইল ব্যবহার করতে পারছেন শুধুমাত্র সেন্টার সেক্রেটারি, অফিস ইনচার্জ, ভেনু ইনচার্জ, ভেনু সুপারভাইজার, ভেনু অ্যাডিশনাল সুপারভাইজার! তারমধ্যেও কিভাবে ফাঁস হল প্রশ্ন তা নিয়ে চিন্তায় সবাই। তাহলে কি সর্ষের মধ্যেই ভূত লুকিয়ে? প্রশ্ন উঠছে গতকালের মতই।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.