Header Ads

গুরুতর অভিযোগ শিক্ষামন্ত্রীর বিরুদ্ধে! সরকারকে ১৮ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়সীমা UUPTWA-র।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ শিক্ষক অসন্তোষের ঘটনা ক্রমবর্ধমান এরাজ্যে। পে-কমিশন, ডিএ, সমকাজে সম বেতন আর যোগ্যতা অনুযায়ী বেতনের দাবীতে একাধিকবার পথে নেমেছেন শিক্ষকরা। বিশেষ করে রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বঞ্চনা তথা পিআরটি স্কেল না পাওয়া নিয়ে সব থকে বেশি সুর চড়িয়েছে প্রাথমিক শিক্ষকদের অরাজনৈতিক সংগঠন UUPTWA।
কিন্তু কিছুদিন আগেই সংগঠন জোর ধাক্কা খায় রাজ্য পুলিশের অসহযোগিতায়। কোচবিহারের ঘোষিত সভা এবং মিছিলের কর্মসূচি শেষ পর্যন্ত প্রশাসনের অঙ্গুলিহেলনে বন্ধ করতে বাধ্য হন প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠন UUPTWA-র কর্তা ব্যাক্তিরা। অনেক চেষ্টা করেও সেদিনের সভার অনুমতি মেলেনি, কারন শিক্ষক সমাবেশে অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিল পুলিশ!! কিন্তু এবার শেষ পর্যন্ত অনুমতি মেলে মিছিল এবং সভা করার। আজ সকাল ১১ টার সময় শিয়ালদহ স্টেশন থেকে রামলীলা ময়দান পর্যন্ত এক বিশাল মিছিল করেন শিক্ষক সংগঠন UUPTWA-র সদস্য-রা এবং তারপর রামলীলা ময়দানে হয় সমাবেশ।
আজকের সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন বামপরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি UUPTWA এই ন্যায্য অধিকার আদায়ের দাবিকে সমর্থন করেন, একাধিক বার মুখ্যমন্ত্রীকে শিক্ষকদের দাবির স্বপক্ষে চিঠি দিয়েছেন বলে জানান তিনি। পাশাপাশি সুজন চক্রবর্তী বলেন শিক্ষকদের এই অধিকার ছিনিয়ে নিতে হবে। এই লড়াইতে তিনি পাশে ছিলেন, আছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন। এদিন উপস্থিত ছিলেন বিজেপির প্রাক্তন বিধায়ক শমীক ভট্টাচার্য, তিনি বলেন এই দাবির পক্ষে পূর্ণ নির্ণায়ক যোগ্যতা মান থাকা সত্ত্বেও প্রাথমিক শিক্ষকদের অর্থ-সামাজিক ভাবে চরম বঞ্চনা করছেন বর্তমান সরকার।
শমীক ভট্টাচার্য আরও বলেন 'PRT' ইস্যুতে যদি কেন্দ্রীয় মানব-সম্পদ মন্ত্রী মাননীয় প্রকাশ জাভরেকড় এর সঙ্গে দেখা করার বিষয়ে পূর্ণ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন তিনি। শিক্ষকদের প্রতি চরম বিমাতৃসুলভ আচরনের জন্যে সরকারের সমালোচনায় মুখর হন তিনি। উস্থি উনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সহঃ সভাপতি শান্তনু মন্ডল নজরবন্দিকে জানিয়েছেন। 'চিফ সেক্রেটারি দ্বারা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ১৮ই ফেব্রুয়ারীর মধ্যে আলোচনায় বসার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এই নির্দিষ্ট সময়রেখার মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী যদি আলোচনায় না বসতে চান, তাহলে দিল্লির রামলীলা ময়দানে এক অভূতপূর্ব ধর্না ও আন্দোলনের জন্য আমরা প্রস্তুত'।
সংগঠনের সম্পাদিকা পৃথা বিশ্বাস জানিয়েছেন এদিন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ডেপুটেশন গ্রহন করার কথা ছিল, পার্থ বাবু ডেপুটেশন তো নেননি উলটে শিক্ষকরা মিছিল বা সমাবেশে এসেছেন তাঁর জন্যে ছুটি নিয়েছেন কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন!
এদিন মিছিলে শিক্ষকদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত।
DESCRIPTION OF IMAGE

No comments

Theme images by sndr. Powered by Blogger.