Header Ads

অর্পিতা ঘোষকে প্রার্থী করা নিয়ে বিতর্কের অবসান হল কোর কমিটির বৈঠকে!

নজরবন্দি ব্যুরো: অবশেষে দলের অবজারভারের সামনে  বালুরঘাট লোকসভা আসনে এবারও অর্পিতা ঘোষকে প্রার্থী করা নিয়ে  জেলা সভাপতি ও অর্পিতা ঘোষের গোষ্ঠীর মধ্যে উত্তপ্ত বাক যুদ্ধের পর সন্ধি স্থাপন হর আজকের কোর কমিটির বৈঠকে।

তৃণমূল নেত্রী বালুরঘাট আসনে অর্পিতা ঘোষকে প্রার্থী মনোনীত করেন। এই খবরে ক্ষুব্ধ হন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিপ্লব মিত্র।  প্রায় ২ বছর আগে থেকে জেলার সাধারণ কর্মীদের সাথে অর্পিতা ঘোষের যে কোনও যোগাযোগ নেই এমন অভিযোগ জানিয়ে আসছিলেন বিপ্লব বাবু।
প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর তিনি আবারও এব্যাপারে দল-নেত্রীর নিকট প্রার্থী বদলের দাবি জানানোয় পরিস্থিতি ক্রমশই জটিল হয়ে ওঠে। যদিও নেত্রী তার  সে দাবি না মেনে অর্পিতা ঘোষকে পাশে বসিয়ে জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্রকে পাল্টা কড়া বার্তা দেন।  পাশাপাশি তৃণমূল নেত্রী এই সমস্যা অবিলম্বে  জেলার কোর কমিটির বৈঠক ডেকে মিটিয়ে নেওয়ার জন্য দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার দলের অবজারভার গৌতম দেবকে নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশ মোতাবেক আজ বালুরঘাট শহরের একটি বেসরকারি প্রেক্ষাগৃহে এই কোর কমিটির বৈঠক বসে।

টানা আড়াই ঘণ্টার বৈঠক প্রথম থেকে অর্পিতা দেবীকে বহিরাগত ও কর্মীরা কাছে পান না বলে অভিযোগ ওঠে। এক সময় পরিস্থিতি এমন উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে বৈঠকে দু-গোষ্ঠীর লোকেদের একে অপরের দিকে তেড়ে আসতে দেখা যায়। এই সময় খোদ দলের অবজারভার গৌতম দেব পরিস্থিতি সামাল দেবার চেষ্টা করেন।

এই উত্তপ্ত বাদানুবাদের মধ্যে টানা আড়াই ঘণ্টা বৈঠক চলার পর জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র ও প্রার্থী অর্পিতা ঘোষকে নিয়ে দলের অবজারভার তথা রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব সংবাদ মধ্যমের মুখোমুখি হন।
সেখানে জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র জানান তাদের দল নেত্রী একবার প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে দেবার পর তাদের মধ্যে এব্যাপারে আর কোন মতবিরোধ নেই। তারা এবার সবাই মিলে এই আসনটি জেতার জন্য ঝাঁপাবেন।  যদিও তিনি স্বীকার করেন কর্মীদের তরফ থেকে বিগত পাঁচ বছরে সাংসদকে কাছে না পাওয়ার ব্যাপারে অভিযোগ আছে। সে নিয়ে তিনি দল নেত্রীকে প্রার্থী বদলের দাবি জানিয়েছিলেন। কিন্তু আজকের পর সে সব অতীত। আমাদের টার্গেট এই আসনটি জেতা।
Loading...

কোন মন্তব্য নেই

lishenjun থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.