সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী চেয়ে নির্বাচন কমিশন কে চিঠি BNUPSS এর

নজরবন্দিঃ গত পঞ্চায়েত ভোটে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে রক্তাক্ত আবহাওয়ায় ভোটকর্মীরাও কোনো অংশে ছাড় পায়নি । পর্যাপ্ত সুরক্ষা না থাকায় হিংসার বলি হয় শিক্ষক রাজকুমার রায় ।প্রিসাইডিং অফিসার রাজকুমার বাবু রায়গঞ্জের ইটাহারে ভোটের ডিউটি চলাকালীন বুথে দুস্কৃতিকারী দের রিগিং করতে বাধা দেয় । পরে ! তিনি নিখোঁজ হন এবং সোনাডাঙ্গীতে রেললাইনে তার ক্ষত বিক্ষত মৃতদেহ পাওয়া যায় । নির্বাচন কমিশন বা রাজ্য সরকার উনার মৃত্যুর দায় নেয়নি ।
প্রশ্ন ওঠে ভোট কর্মী দের সুরক্ষা নিয়ে । শিক্ষক মহলে আন্দোলন এর ঝড় ওঠে । শিক্ষক সংগঠন "বঙ্গীয় নব উন্মেষ প্রাথমিক শিক্ষক সঙ্ঘ "এই আন্দোলনের শরিক হয় । দফায় দফায় মৌনমিছিল ,ডেপুটেশন,সেমিনার সহ একাধিক কার্যক্রমের মাধ্যমে আন্দোলন চালায় । বছর ঘুরতে না ঘুরতে আবার এলো সব চেয়ে বড় গনতান্ত্রিক উৎসব লোকসভা ভোট । আবারো প্রশ্ন উঠল ভোটকর্মী দের পর্যাপ্ত সুরক্ষার । প্রথমে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন সব বুথ স্পর্শকাতর ধরে নিয়ে ১০০%বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করার কথা জানালেও এখন তা ৪০%এ এসে দাড়িয়েছে । প্রথমে পশ্চিম বর্ধমান ও দক্ষিণ দিনাজপুরে ভোটকর্মীরা ট্রেনিং এ পর্যাপ্ত সুরক্ষার দাবিতে তুমুল বিক্ষোভ শুরু করলে তা দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে রাজ্যে অন্য জেলা গুলিতেও ।
 বঙ্গীয় নব উন্মেষ প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনের প্রদেশ সম্পাদক চিরঞ্জীত ! ধীবর পশ্চিম বর্ধমান এর আসানসোলে ট্রেনিং চলা কালীন প্লাকার্ড নিয়ে স্লোগান দেয় "আমরা ২য় রাজকুমার রায় হতে চাইনা " যা রাজ্যের প্রতিটি ভোটকর্মী র মনের ক্ষোভ কে আরো দিগুণ করে তোলে । ভোট যত এগিয়ে আসছে ক্ষোভ তত বাড়ছে । এমত অবস্থায় কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন কে সকল বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি জানিয়ে চিঠি দিল বঙ্গীয় নব উন্মেষ প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠন (BNUPSS).সংগঠনের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কানুপ্রিয় দাস বলেন , "আমরা গত পঞ্চায়েত ভোটের পরবর্তী সময়ে ভোট কর্মী দের সুনিশ্চিত নিরপত্তার দাবি জানিয়েছি । এখন কমিশন কে চিঠি দিয়ে সকল বুথ এ কেন্দ্রীয় বাহিনী র দাবি করেছি । যদি এতে কাজ না হয় ভোটকর্মী দের স্বার্থে আরো বড় পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হব আমরা । "
DESCRIPTION OF IMAGE
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.