'আমরা পুরো তথ্য দিইনি', ক্ষমা চাইলেন সুধীর চৌধুরী‌

নজরবন্দি ব্যুরো: ভুল তথ্য ছড়িয়ে গোটা দেশে বিতর্ক ছড়ানোর জেরে বৃহস্পতিবার মহুয়া মৈত্র ও সকল ভারতবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন সাংবাদিক সুধীর চৌধুরী। লাইভ শো–তে এসে তিনি বলেন, "মহুয়া মৈত্র তাঁর ভাষণে আমেরিকার লেখক মার্টিন লংম্যানের প্রতিবেদনটির কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছিলেন। সেকথা আমরা দর্শককে জানাইনি। আমাদের বলতে কোনও দ্বিধা নেই যে আমরা ভুল করেছি।"
তবে ভাষণের শুরুতে প্রতিবেদনটির কৃতজ্ঞতা স্বীকার না করে কেন শেষে করলেন, তা নিয়েও বিতর্ক তৈরি করার চেষ্টা করেন। কিন্তু ততক্ষণে প্রধান সম্পাদকের ক্ষমা চাওয়ার ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে ভাইরাল। বহু জায়গায় তাঁকে নিয়ে ট্রোল করাও হয়েছে।
ভারতে হইচই শুরু হতেই আমেরিকার মার্কিন পত্রিকায় প্রকাশিত 'দ্য ১২ সাইনস অফ ফ্যাসিজম'-এর প্রতিবেদক মার্টিন লংম্যান নিজেই মহুয়াকে সমর্থন করেছেন। এরপর ওই টিভি ও তার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে সরব হন মহুয়া। এমনকী, বৃহস্পতিবার লোকসভায় স্বাধিকার ভঙ্গের নোটিশ দেন।
কিন্তু, টিভি চ্যানেল ও সাংবাদিকের নাম নেওয়ায় তাঁর মাইক বন্ধ করে দেওয়া হয়। মহুয়ার বক্তব্য, ফ্যাসিবাদের লক্ষণ সবসময়ই একরকম। নিজের মন থেকে ভাষণ দিয়েছেন তিনি। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, 'বক্তৃতায় স্পষ্ট বলেছিলাম, হলোকস্ট মিউজিয়ামে রাষ্ট্রবিজ্ঞানী লরেন্স ডব্লু ব্রিটের একটি পোস্টারে ফ্যাসিবাদের ১৪টি লক্ষণের কথা বলা হয়েছে। ভারতে তার মধ্যে ৭টি লক্ষণ স্পষ্টতই দেখা যাচ্ছে।'  ‌‌
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.