Header Ads

বিজেপির কর্মসূচিতে পুলিশের লাঠি! চোখ উড়ে গেল বিজেপি কর্মী-র, আহত ১৩৫। #Exclusive

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিজেপির আইন অমান্য কর্মসূচী ঘিরে রনক্ষেত্র হয়ে উঠল পশ্চিম মেদিনীপুর। আজ জেলায় আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতির অভিযোগ সামনে রেখে পুলিশ সুপারের অফিস ঘেরাও কর্মসূচি ও আইন অমান্যের ডাক দেয় বিজেপি। ১১ টা থেকে জমায়েত শুরু হয় মেদিনীপুর টাউনের এলআইসি মোড়ে।
১২টা নাগাত সভা শুরু হয় সেখানে, উল্লেখ্য এই সভাস্থল থেকেই মিছিল করে পুলিশ সুপারের অফিস ঘেরাও করার ডাক দিয়েছিল বিজেপি। নেতৃত্ব হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ এবং নেতা সায়ন্তন বসু। সভা শুরু হওয়ার পরেই সভাস্থল ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে ফেলে বিরাট পুলিশ বাহিনী। সভাস্থলে জমায়েত হওয়া বিজেপি কর্মীরা  প্রথম ব্যারিকেড ভেঙে এগোতে চেষ্টা করলে দ্বিতীয় ব্যারিকেডের মুখে তাদের বাঁধা দেয় পুলিশ। বচসা পরিবর্তিত হয় হাতাহাতিতে। বিজেপি সমর্থকদের দিক থেকে পুলিশকে লক্ষ করে উড়ে আসে ইট। পুলিশ কালবিলম্ব না করে শুরু করে লাঠিচার্য, ফাটায় কাঁদানে গ্যাসের সেল।

অন্তত ১০০ জন বিজেপি কর্মী জখম ও ৩৫ জন গুরুতর আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে বিজেপি সূত্রে। পুলিশ সূত্রে খবর বিজেপি কর্মীদের ছোঁড়া ইটের আঘাতে ৭ জন পুলিশ কর্মী জখম হয়েছেন। আহতদের মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
ভারতী ঘোষ অভিযোগ করেছেন, বিজেপি-র শান্তিপূর্ণ মিছিলে বিনা প্ররোচনায় লাঠিচার্য করেছে পুলিশ। রাজ্যে দমন মূলক সরকার চলছে বলেও জানান তিনি। প্রসঙ্গত, এস পি অফিস ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের ছোঁড়া কাঁদানে গ্যাসের সেলের আঘাতে আহত হয়েছেন কেশপুর ও শালবনির বিজেপি কর্মীরা। কেশপুরের শেখ্ সারিবুল,শালবনির শেখ্ সৈফুদ্দিন ও কালিপদ সিং - এই বিজেপি কর্মীদের চোখে,পিঠে ও শরীরে বোমার আঘাত লাগে। 
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.