Header Ads

তাহলে কি কোন দাবিই মিটল না প্রাথমিক শিক্ষকদের? আবার আন্দোলন!!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ১৪ দিন অনশন আর ১৫ দিন ধর্নার ফল মিলেছে কদিন আগেই, যোগ্যতা অনুযায়ী বেতনের দাবি না পূরণ হলেও বেড়েছে গ্রেড পে। অনশন প্রত্যাহার করেছে অরাজনৈতিক শিক্ষক সংগঠন উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারী টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোশিয়েশন। যোগ্যতা অনুযায়ী বেতনের দাবীতে অনশন পাশাপাশি অনৈতিক ভাবে ট্রান্সফার করে দেওয়া ১৪ জন শিক্ষককে পুনরায় নিজের নিজের জেলায় ফিরিয়ে আনার দাবীতে অনশন চলছিল। অনশনের ১৩ তম দিনে দলীয় শিক্ষক সংগঠনের সভায় বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।
যদিও সেখানে তিনি ডাকেননি অনশনকারী শিক্ষক সংগঠনকে। সেই সভা থেকে বেতন কাঠামো সংশোধনের কথা জানিয়েদেন তিনি। আর তাঁর ঘোষণা অনুযায়ী সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে পরের দিনই বেতন বৃদ্ধির নির্দেশিকা জারি করে শিক্ষা দফতর।
কথা ছিল আগষ্ট মাস থেকেই নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী বেতন পাবেন রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষক রা। সেই মত জেলায় জেলায় ফর্ম পূরনের জন্যে দেওয়া হয়েছে শিক্ষকদের। কিন্তু বিজ্ঞপ্তি নিয়ে ধ্বন্দে পড়েছেন শিক্ষকরা! হাওড়া জেলার শিক্ষক মহলে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে শিক্ষা দফতরের বিজ্ঞপ্তি ঘিরে। এই জেলায় শিক্ষকদের যে ফর্ম দেওয়া হয়েছে পূরনের জন্যে তাতে রয়েছে, শিক্ষক কবে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করেছেন/কত শতাংশ নাম্বার পেয়েছেন/কবে চাকরিতে যোগদান করেছেন/এখন কত গ্রেড পে পান/কোন স্কুলে চাকরি করেন/কোন পে ব্যান্ডে বেতন পান ইত্যাদি ইত্যাদি। শিক্ষকদের প্রশ্ন এই ফর্ম কেন পূরন করতে হবে তাঁদের? স্কুল শিক্ষা দফতরের কাছে কি চাকরিরত শিক্ষকদের কোন তথ্য নেই?

উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স অ্যাসোশিয়েসানের পক্ষ থেকে এই ফর্ম পূরনের ক্ষেত্রে তীব্র বিরোধিতা করে সংবাদমাধ্যম কে জানানো হয়েছে, এই ফর্ম অনুযায়ী শিক্ষকদের শুধুমাত্র গ্রেড পে বাড়বে। অর্থাৎ আন্দোলনের যা দাবি ছিল তার কোনটাই পূরন করছে না রাজ্য সরকার। এই ফর্মে পে স্কেল পরিবর্তনের কথা নেই, পে প্রোটেকশন নেই, পে ফিক্সেশন নেই, ফিগমেন্ট ফ্যাক্টর নেই৷ এখানে সই করার অর্থ শুধুমাত্র গ্রেড পে পরিবর্তন৷ সরকার পরিষ্কার ভেবে বিজ্ঞপ্তি জারি না করলে আবার তীব্র আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সন্দীপ ঘোষ।
অন্যদিকে,WBPTTA-র রাজ্য সভাপতি পিন্টু পাড়ুই হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছেন, "মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী আপনার প্রতিশ্রুতি পালন করুন। নতুবা তামাম PTTI আন্দোলন খুব শীঘ্রই দেখবে রাজ্য!" এক শিক্ষক সংগঠনের কর্মী জানিয়েছেন, নতুন শিক্ষকদের বেতন বাড়ছে ৩০০০-৪০০০ আর পুরনো শিক্ষকদের বেতন বাড়ছে ২৪০০ টাকা!  
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.