২৫০০ টাকাও বাড়েনি বেতন,নিখোঁজ DA! সরকারের বিরুদ্ধে SAT-এ যাচ্ছেন সরকারি কর্মীরা।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ অবশেষে দীর্ঘ টাল বাহানার পর মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সরকার চালু করতে চলেছে ষষ্ঠ বেতন কমিশন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন ষষ্ঠ বেতন কমিশন কবে থেকে কার্যকর হচ্ছে ১ জানুয়ারি ২০২০ থেকে। বেসিক সেলারি বাড়বে ২.৫৭ শতাংশ। ন্যূনতম বেসিক হবে ১৭৯৯০ টাকার৷ আজ মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই বিষয়ে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ পয়লা জানুয়ারি ২০২০ থেকে নতুন পে কমিশন কার্যকর করা হবে বলে জানা গেছে।আজই ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ গ্রহণ করেছে রাজ্য সরকার। নবান্নে ষষ্ঠ পে কমিশনের ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। কিন্তু রাজ্য সরকারের এই ঘোষণায় খুশি নন সরকারি কর্মীরা।
এতদিন রাজ্য সরকারি কর্মীদের ন্যূনতম বেসিক ছিল ৬,৬০০ টাকা। যার সাথে যোগ হত ১২৫ শতাংশ ডিএ এবং ১৫ শতাংশ HRA, বেতন দাঁড়াত ১৫,৮৪০ টাকা।
নতুন পে কমিশন চালু হওয়ার ফলে যে কর্মচারী ৬,৬০০ টাকা বেসিক পান তাঁর বেতন হবে ১৯,৬০০ টাকা। ফলে সহজ হিসেবে বেতন বৃদ্ধির পরিমান মাত্র ২,৪৮০ টাকা।
রাজ্য সরকারি কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন,
"২০১৬ সাল থেকে বেতন কমিশন বকেয়া রয়েছে। ২০২০ সালে তা কার্যকর করার কথা বলা হলেও তিন বছরের বকেয়া বেতন নিয়ে একটা কথাও বলেননি অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। ডিএ-এর ব্যাপারে কোনও কথা বললেন না তিনি। উনি চালাকি করেছেন। ১৫ শতাংশ HRA কমিয়ে ১২ শতাশ করা হয়েছে। তিন বছরের বকেয়া বেতন না দেওয়ায় প্রত্যেক কর্মীর ন্যূনতম লক্ষ টাকা মতো বকেয়া লোকসান হল।"
মলয় বাবু আরও বলেন "রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল অর্থাৎ স্যাটের দ্বারস্থ হবেন তাঁরা।"
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.