ইলিশের রসনায় তৃপ্ত বাঙালীয়ানা।


নজরবন্দি ব্যুরোঃ  বাঙালির পাতে নয় সাহিত্যেও ধরা দিয়েছে ইলিশ ভারী কখনো মাঝারি বৃষ্টিপাত এ ইলিশের দেখা মেলে। বর্ষার ইলিশ পাতে পড়লে বাঙালীর বাঙালীয়ানা যেন ফুলে-ফেঁপে ওঠে। হোটেল-রেস্তোরাঁ পাড়ায় ক্লাবে এমনকি গঙ্গাবক্ষে লঞ্চে উৎসবে মেতে ওঠে আপামর বাঙালি। বাঙালির সেই ইলিশ ম্যানিয়ার পা মেলালেন অ- বাঙালিরাও। ইলিশ বলতে বাঙালি অজ্ঞান। ইলিশ শব্দের অন্তর্নিহিত অর্থ ইল' কথার অর্থ জল আর ঈশ' মানে ঈশ্বর "জলের ঈশ্বরকে" ইলিশ বলা হয়। "পদ্মা নদীর মাঝি "উপন্যাসের মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন- "নৌকার করে জমতে থাকে মৃত সাদা ইলিশ মাছ। লন্ঠনের আলোয় মাছের আঁশ চকচক করে। নিষ্পলক চোখগুলো স্বচ্ছ নীলাভ মনির মতো দেখায়"।  সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত অপর একটি কবিতা ইলিশ সম্পর্কে বলেছেন "ইলশে গুঁড়ি ইলশেগুঁড়ি ইলিশ মাছের ডিম ইলশেগুঁড়ি ইলশেগুঁড়ি দিনের বেলায় হিম" জীমূতবাহন এ ইলিশের গুণাবলীর বিস্তারিত বিবরণ। মানসিংহের এক লোকো কবির কলমে উঠে এসেছে ইলিশের কথা "সেই ইলিশের দাম আইলো সোনার একুশ ভরি মাছ ইলিশা রে" মোস্তফা আলী লেখকদের কলমে উঠে এসেছে ভোজনরসিকের কথা তার কথায় আস্ত ইলিশ মাঝ খান দিয়ে কেটে বাটা মশলা দিয়ে কলাপাতায় মরে আগুনে সেকা হয় এই মাঠ দেবভোগ্য তো বটেই এবং এতটাই স্বাস্থ্যকর যে এক আসতো আড়াই তিন কিলো ইলিশ গোটা খেলেও কোনরকম শরীর খারাপ হয় না" বিবেকানন্দের চিঠিতে উঠে এসেছে ইলিশের প্রসঙ্গ-- "পৃথিবীতে এমন জিনিসটি আর হয়না নদীতে ইলিশ উঠেছে দেখছি আর লিখছি ঘরের গায়ের ঢেউ ধাক্কা খেলে উঠছে নিচে শত শত মাছ ধরার নৌকা সবাই মাছ ধরায় ব্যস্ত আমাদের ইলিশ তোমাদের আমেরিকান ইংলিশে বহুগুণে উৎকৃষ্ট"।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.