NRC-তে নাগরিকত্ব হারানোর আতঙ্কে আত্মহত্যা রাজ্যে! কি নথি লাগবে জানুন।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বাংলায় এনআরসি, নাগরিকত্ব হারানোর ভয়। আর সেই আতঙ্কেই আত্মহত্যার পথ বেছে রাজ্যের এক বাসিন্দা। জানা গেছে জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ির এক বাসিন্দা, নাম শ্যামল রায় এদিন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তাঁর পরিবারের অভিযোগ এনআরসি আতঙ্কেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। পাশাপাশি এই ইস্যুতে শ্যামল রায়ের পরিবারের সদস্যরা ধুপগুড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সূত্রের খবর, এনআরসি-তে নাগরিকত্ব হারানোর আতঙ্কে গত কয়েকদিন ধরে পুরনো নথিপত্র যোগাড় করার জন্যে প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে হত্যে হয়ে ঘুরছিলেন কিন্তু সেখানে লম্বা লাইন দেখে হতাশ হয়ে পড়েন তিনি। খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন পুরনো নথি যোগাড় করা বেশ কঠিন, এমনকি নাও পাওয়া যাতে পারে। এরপর থেকেই নাগরিকত্ব হারানোর আতঙ্কে মানসিক অবসাদে ভুগতে থাকেন শ্যামল বাবু, পরে চুড়ান্ত পথ বেছে নেন তিনি।
প্রসঙ্গত অসমে এনআরসি তে নাগরিকত্ব হারিয়েছেন প্রায় ১৯ লক্ষ মানুষ, সেই আতঙ্ক এরাজ্যের সীমান্তবর্তী এলাকার বাসিন্দাদেরও গ্রাস করেছে।
একদিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন সভা থেকে বলছেন প্রান থাকতে এনআরসি হতে দেবনা অন্য দিকে বিজেপি নেতারা বলছেন এনআরসি করেই ছাড়বেন। এই দুই যুযুধান প্রতিপক্ষের রাজনৈতিক তরজার মুখে পড়ে মানসিক অবসাদগ্রস্ত হচ্ছেন সাধারন মানুষ।
জেনে নিন কিকি নথি লাগবে।
১। ১৯৭১-এর আগে ভোটার-তালিকা
২। জমি বা ভাড়া বাড়ির প্রমাণ
৩। স্থায়ী বসবাসের শংসাপত্র
৪। শরণার্থী শংসাপত্র
৫। পাসপোর্ট,সরকারি লাইসেন্স
৬। সরকারি চাকরির সার্টিফিকেট
৭। এলআইসি পলিসি, ব্যাঙ্ক বা পোস্ট অফিসে অ্যাকাউন্ট
৮। জন্মের শংসাপত্র
৯। বোর্ড বা বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেট।
 এছারাও কোন ব্যক্তির পূর্ব পুরুষরা ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ পর্যন্ত জন্মের শংসাপত্র ও জমির রেকর্ড থাকলে পাওয়া যেতে পারে পারে নাগরিকত্ব। এছারাও ১৯৭১-এর আগে ভোটার-তালিকায় নাম রেশন কার্ড বা অন্য যে-কোনও আইনগত ভাবে বৈধ সরকারি নথিপত্র থাকলে সে গুলিকেও নাগরিকত্বের প্রমান হিসেবে ধরা হবে।  
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.